ঘুর্ণিঝড় ‘ইয়াস’ মোকাবিলায় চট্টগ্রামে ৫শ আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত

চট্টগ্রাম ব্যুরো: ঘুর্ণিঝড় ‘ইয়াস’ বাংলাদেশে ২৫ বা ২৬ তারিখে আঘাত হানতে পারে। এজন্য ১ নম্বর দূরবর্তী বিপদ সংকেত জারি করা হয়েছে। ঘূর্ণিঝড় ‘ইয়াস’ এর সম্ভাব্য ক্ষয়ক্ষতিকে সামনে রেখে তা মোকাবেলায় চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের প্রস্তুতির কথা জানিয়েছে কতৃপক্ষ।

রবিবার (২৩ মে) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে প্রশাসানের প্রস্তুতির বিভিন্ন ববিষয় জানান নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ওমর ফারুক।

তিনি জানান, উপকূলবর্তী সকল উপজেলার ইউএনও, এসিল্যান্ড, থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্ত(ওসি), পিআইও
ও সংশ্লিষ্ট সরকারী কর্মকর্তা কর্মচারীগণকে কর্মস্থলে থাকার জন্যে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। করোনার কারণে স্কুল কলেজ বন্ধ থাকার কারণে দীর্ঘদিন ধরে অপরিষ্কার ও জরাজীর্ণ আশ্রয়কেন্দ্রগুলো পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করে বিদ্যুৎ সংযোগ ও অন্যান্য ভৌত অবকাঠামো প্রস্তুত করার জন্যে ইতোমধ্যে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

তিনি আরো জানান, ৫০০টি ঘুর্ণিঝড় আশ্রয়কেন্দ্রগুলো প্রস্তুত হয়েছে সে লক্ষে ৫ জন এডিসি উপকূলবর্তী উপজেলাগুলোর আশ্রয় কেন্দ্রগুলো পরিদর্শন করেছেন। যে কোন সম্ভাব্য ক্ষয়ক্ষতি ও আশ্রয়কেন্দ্রে আনয়ন, সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষে সংশ্লিষ্ট স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন,এনজিও সমূহ প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

এছাড়া আমাদের হাতে পর্যাপ্ত ত্রাণ ও খাদ্য সামগ্রী মজুদ আছে। পর্যাপ্ত সংখ্যক মেডিকেল টিম প্রস্তুত রয়েছে। গুখাদ্য কেনার জন্যে প্রতিটি উপজেলায় ১ লাখ টাকা করে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষে প্রচার প্রচারণাসহ মাইকিং করা হচ্ছে। আমরা সার্বিক প্রস্তুতি গ্রহণ করছি যাতে ‘ইয়াস’ মোকাবেলায় মানুষের জানমালের সম্ভাব্য সর্বনিম্ন ক্ষয়ক্ষতি হয় বলে জানান ম্যাজিস্ট্রেট ওমর ফারুক।

নিউজনাউ/পিপিএন/২০২১

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান
%d bloggers like this: