আগ্রাসী ইসরায়েলের বিচারের দাবিতে বার্লিনে বিক্ষোভ

বার্লিন, জার্মানি থেকে: সাময়িক অস্ত্র বিরতির মধ্যেও শুক্রবার ঐতিহাসিক আল আকসা মসজিদে ইসরায়েলি বাহিনীর বর্বর হামলার প্রতিবাদে আবারো সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে জার্মানির রাজধানী বার্লিনে।

শনিবার দেশটির বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যের মত রাজধানী বার্লিনের পোস্টডামার প্লাটজে বেশ কয়েক হাজার মানুষ অনতিবিলম্বে যুদ্ধ বন্ধসহ ইসরায়েলকে যেকোন মূল্যে বিচারের মুখোমুখি করার অঙ্গীকার করেন দেশটিতে বসবাসরত ফিলিস্তিনের প্রবাসীসহ সর্বস্তরের সাধারণ নাগরিকেরা। সমাবেশে অংশ না নিতে সরকারী আদেশ অমান্য করে অংশ নেয়া আন্দোলনকারীরা বলেন তথাকথিত সাময়িক অস্ত্র-বিরতি নয় বরং ফিলিস্তিনকে পরাধীন রাখাসহ সাধারণ নাগরিকদের উপর নিপীড়ন বন্ধ, হত্যা, ও গাজা উপত্যকায় ইসরায়েল বসতি স্থাপন এখনি বন্ধ না করলে আন্দোলন আরো জোরদার করার ঘোষণা দেন সমাবেশ-কারীরা।

এসময় বিক্ষোভকারীরা আরো বলেন যদিও এখন দুদেশের সরকার অস্ত্র বিরতিতে সম্মত হয়েছে তবুও ইসরায়েলকে বিশ্বাস করা হবে সবচেয়ে বড় বোকামি। শুক্রবারের জুমার দিনটাতেও আমাদের আল আকসা মসজিদে নামজরত মুসলমানদের উপর অত্যাচার করেছে। গুলি করেছে। এরপরও কি ইসরায়েলকে কি সত্যিই বিশ্বাস করা যায়?

এসময় আরো একজন বলেন চলমান যুদ্ধের বিরতিতেও আমার পরিবারে দুশ্চিন্তার শেষ নাই। ইসরায়েলের বোমার আঘাতে সবকিছু লণ্ডভণ্ড।তাই আমরা বিশ্বের সবার কাছে ইসরায়েলের বর্বরতার বিচার চাইতেই এইখানে জমায়েত হয়েছি। আন্দোলনকারীরা বলেন শুধু জার্মানি নয় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও তার আরবদেশের বন্ধু রাষ্ট্রগুলোকে সাথে নিয়ে চিরস্থায়ী শান্তি প্রতিষ্ঠিত না হলে প্রাণ হারাবে দু-দেশেরই নিরপরাধ মানুষেরা। যতক্ষণ সমাবেশ চলেছে ততক্ষণই সমাবেশের স্থানটি মুখরিত হয় ফ্রি ফিলিস্তিন ফ্রি ফিলিস্তিন স্লোগানে।

নিউজনাউ/আরবি/২০২১

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান
%d bloggers like this: