আজ বিশ্ব হাঁপানি দিবস

নিউজনাউ ডেস্ক: বিশ্ব হাঁপানি দিবস আজ। ১৯৯৮ সাল থেকে প্রতি বছর ৫ মে পালিত হয় বিশ্ব হাঁপানি দিবস বা ওয়ার্ল্ড অ্যাস্থমা ডে।

এ বছর বিশ্ব হাঁপানি দিবসের মূল থিম হল হাঁপানি সম্পর্কে ভুল ধারণা থেকে বেরিয়ে আসুন’ (Uncovering Asthma Misconceptions)। “হাঁপানি কোনও জটিল অসুখ নয়৷ সঠিক চিকিৎসায় এই রোগ থেকে সেরা ওঠা সম্ভব। সুস্থ থাকুন, ভালো থাকুন৷ আনন্দে জীবন কাটান।”

অ্যাজমা বা হাঁপানি সম্পর্কে সচেতনতা ছড়াতে এবং বিশ্বজুড়ে এই অন্যতম শ্বাসকষ্টজনিত রোগের যত্নের উন্নতির জন্য পালন করা হয় দিবসটি।

সারা বিশ্বের প্রায় ১.৫ কোটিরও বেশি মানুষ আ্যাজমা বা হাঁপানিতে আক্রান্ত। কিন্তু অনেকেই বুঝতে পারেন না যে তিনি এই রোগে আক্রান্ত। বায়ু দূষণের কারণে এ দেশে অ্যাস্থমার প্রকোপ অনেক বেশি।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO) জানিয়েছে, চিকিৎসাধীন হাঁপানিতে আক্রান্ত ব্যক্তিরা ঘুমের ব্যাঘাত, ক্লান্তি এবং দুর্বলতার শিকার হতে পারেন। হাঁপানিতে আক্রান্ত ব্যক্তি ও তাঁদের পরিবারের আর্থিক সমস্যা সহ স্কুল এবং কাজের ক্ষেত্রেও নানা অসুবিধা তৈরি হতে পারে।

শুধু তাই নয়, এই রোগের লক্ষণগুলি গুরুতর হলে, হাঁপানিতে আক্রান্ত ব্যক্তিদের জরুরি চিকিৎসা গ্রহণের প্রয়োজন হতে পারে এবং তাঁদের পর্যবেক্ষণের জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা যেতে পারে। অনেক সময় সঠিক চিকিৎসা না হলে এই হাঁপানি মৃত্যুর কারণ হতে পারে।

সুতরাং, হাঁপানির বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য সচেতনতা বৃদ্ধি এবং জনকল্যাণমুখী কাজ করা জরুরি। হাঁপানি নিয়ন্ত্রণে আমাদের প্রিয়জনদের জন্য একটি স্বাস্থ্যকর পরিবেশ তৈরি করার বার্তা দেয়। বাড়িতে কোনও হাঁপানির রোগী থাকলে কী করা উচিত তা তাঁদের স্মরণ করিয়ে দেওয়া এই দিবস পালনের মূল উদ্দেশ্য।

সুস্থ পরিবেশে বেঁচে থাকার অধিকার আমাদের সবার রয়েছে। তাইতো এরজন্য পৃথিবীকে আরও সচেতন করে তুলতে হবে। আর এভাবেই আমরা হাঁপানি মুক্ত বিশ্ব গড়ে তুলতে পারব।

নিউজনাউ/আরবি/২০২১

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
মন্তব্য
Loading...
%d bloggers like this: