ওমান থেকে বাংলাদেশে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা,প্রবাসীদের ক্ষোভ

এইচ এম হুমায়ুন কবির, ওমান থেকে: করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণের লক্ষে পহেলা মে হতে কার্যকর হওয়া নতুন নির্দেশনা মোতাবেক ওমান,ভারত, সাইপ্রাস, দক্ষিণ আফ্রিকা,ইরান, ব্রাজিলসহ মোট ১২ টি দেশ হতে যাত্রা শুরু করে কেউ সরাসরি বা অন্য কোন দেশে ট্রানজিট নিয়ে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত বাংলাদেশে যেতে পারবেন না। পাশাপাশি বাংলাদেশ থেকেও কেউ ঐ দেশগুলিতেও যেতে পারবেন না৷

বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের এমন সিদ্ধান্তে হতাশা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছে ওমান প্রবাসী বাংলাদেশীরা। ঈদকে সামনে রেখে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের এমন সিদ্ধান্ত প্রবাসীদের প্রতি বৈরী ও অসম সিদ্ধান্ত বলে বলছেন ওমান প্রবাসীরা।

তারা বলছেন ওমানকে ঝুঁকিপূর্ণ দেশের তালিকায় নিয়ে আসা যথার্থ হয়নি বরং এটি অদূরদর্শী সিদ্ধান্ত। কারণ হিসেবে তারা বলছেন সম্প্রতি ওমানে করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা দিন দিন হ্রাস পাচ্ছে। এমতাবস্থায় ওমানকে ঝুঁকিপূর্ণ রাষ্ট্রের তালিকাভুক্ত করে বেবিচক শুধু প্রবাসীদের প্রতি অসম আচরণ করেননি বরং তাদের দূরদর্শিতা ও যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন।

ওমান প্রবাসী আব্দুল আজিজ তার ফেজবুকে ক্ষোভ প্রকাশ করে লিখেন ” বাংলাদেশ সরকারের বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের অজ্ঞতার কারণেই মনে হয় বাংলাদেশের সাথে বিমান চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে l আমরা প্রবাসীরা আশা করি ওমানে বাংলাদেশ দূতাবাসের সাথে সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ যোগাযোগ করে বিমান চলাচলের পুনর্বিবেচনার করলে অনেক ওমান প্রবাসী যারা বাংলাদেশে যাওয়ার অপেক্ষায় আছে তারা অবশ্যই দেশে যাওয়ার সুযোগ পাবেন”

অন্যদিকে চট্টগ্রাম সমিতি ওমানের সভাপতি ও এনআরবি সিআইপি এসোসিয়েশনের সাংগঠনিক সম্পাদক ইয়াছিন চৌধুরী বেবিচকের এমন সিদ্ধান্তকে অদক্ষতার ফসল হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন এবং প্রবাসীদের বৃহত্তর স্বার্থে কোনরকম কালক্ষেপণ ছাড়াই বিশেষ করে ওমানে ফ্লাইট চালুর বিষয়ে সরকারসহ সংশ্লিষ্টদের বিশেষ বিবেচনার আহ্বান জানান।

বাংলাদেশ প্রবাসী অধিকার পরিষদ ওমানের সভাপতি প্রকৌশলী আলী আশরাফ বলেন ঈদকে সামনে রেখে এমন সিদ্ধান্ত নিঃসন্দেহে আত্মঘাতী । যেখানে ওমান সরকারের কোন আপত্তি নেই সেখানে নিজ দেশের সরকার থেকে এমন সিদ্ধান্ত প্রবাসীদের প্রতি বৈরিতা ও অসম আচরণ ।

এছাড়াও বন্ধু সমাজ ওমানের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও বাংলাদেশ স্কুল সুইকের সাবেক চেয়ারম্যান প্রকৌশলী শামসুল হক বলেন এমনিতেই সাধারণ প্রবাসীরা করোনায় কর্মহীন হয়ে বেকার সময় পার করছেন তাদের অনেকেই ঈদকে সামনে রেখে দেশে যাওয়ার আগাম প্রস্তুতি সেরেছেন। এমতাবস্থায় বেবিচকের অসহযোগিতা ও ফ্লাইট বন্ধের কারণে সাধারণ প্রবাসীদের দেশে যাওয়া ব্যাহত হলে এটি হবে অত্যন্ত দুঃখজনক ও অমানবিক। প্রকৌশলী শামসুল হক যোগ করেন দেশের জন্য যারা সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকার করে বিদেশের মাটিতে পড়ে থেকে দেশের অর্থনীতিকে সমৃদ্ধ করছে তাদের সাথে এমন অবিবেচিত সিদ্ধান্ত মানা যায় না। প্রবাসীদের স্বার্থে নিজ দেশে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের দাবি জানান তিনি।

উল্লেখ্য প্রবাসী বাংলাদেশি বা বাংলাদেশি নাগরিকদের মধ্যে যারা বিগত ১৫ দিনের মধ্যে ঐ ১২ টি দেশের কোন দেশে ভিজিটে গিয়েছেন, তারা সরকারের বিশেষ অনুমতি প্রাপ্তি-সাপেক্ষে বাংলাদেশে ফিরতে পারবেন। তবে এক্ষেত্রে বাংলাদেশে পৌছার পর তাদেরকে সরকার অনুমোদিত যেকোনো হোটেলে নিজ খরচে বাধ্যতামূলকভাবে ১৪ দিন প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে৷

নিউজনাউ/আরবি/২০২১

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
মন্তব্য
Loading...
%d bloggers like this: