করোনা রোগীর শরীরেই করোনা-প্রতিরোধী সেল

নিউজনাউ ডেস্ক: বিশ্বের এক কোটিরও বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে। আর মৃত্যু পাঁচ লাখের বেশি। এখন শরীরের অ্যান্টিবডিকে কাজে লাগিয়ে করোনার টিকিৎসার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা। একইভাবে এগিয়ে চলেছে করোনার প্রতিষেধক তৈরির কাজ। করোনার চিকিৎসায় আনুষ্ঠানিকভাবে প্রয়োগের অপেক্ষায় দিন গুনছে অন্তত তিনটি ভ্যাকসিন।

ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল বিজ্ঞানীর দাবি, তারা এমন এক ধরনের শক্তিশালী কোষের সন্ধান পেয়েছেন, যেগুলো করোনাভাইরাসকে প্রতিহত করতে সক্ষম।

মার্কিন বিজ্ঞানীরা এই বিশেষ কোষের নাম দিয়েছেন ‘টি সেল’ । বিজ্ঞানীদের দাবি, ১০ জনের মধ্যে ৮ জন করোনা আক্রান্তের শরীরেই এই ভাইরাস নিষ্ক্রিয়কারী শক্তিশালী ‘টি সেল’-এর উপস্থিতির প্রমাণ মিলেছে।

টি-সেল হলো এক ধরনের শ্বেত রক্তকণিকা যা আমাদের শরীরের রোগ প্রতিরোধক ক্ষমতা ও তার (ইমিউনো সিস্টেম) কার্যক্রমের অন্যতম অংশ। এই টি-সেল শরীরে প্রবেশ করা ভাইরাস, ব্যাক্টেরিয়া বা ছত্রাকের সংক্রমণকে প্রতিহত করে আমাদের সুস্থতা বজায় রাখে।

বিজ্ঞানীরা কোভিড রোগীদের চিকিৎসা নেয়ার শুরুর দিন, সপ্তম দিন ও ১৪তম দিনে তাদের শারীরিক অবস্থার ওপর পর্যবেক্ষণ চালিয়ে দেখতে পান, তাদের শরীরে টি-সেল সংক্রমণের আগের দিন থেকেই বিদ্যমান ছিল। তবে সংক্রমণের সময় বৃদ্ধি পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে টি-সেলের সক্রিয়তাও বাড়তে থাকে।

মার্কিন বিজ্ঞানীরা করোনা আক্রান্তের শরীর থেকে এই শ্বেত কণিকা (টি-সেল) সংগ্রহ করে সেগুলোকে পরীক্ষাগারে কৃত্তিম উপায়ে বিভাজিত ও বৃদ্ধি ঘটানোর কথা ভাবছেন। এরপর ওই কোষগুলোর জিনগত পরিবর্তন ঘটিয়ে সেগুলোকে করোনাভাইরাসকে ধ্বংস করার উদ্দেশ্যে ব্যবহারের কথা ভাবছেন তারা।

অর্থাৎ, করোনাভাইরাসকে প্রতিহত করতে বিজ্ঞানীদের এখন ভরসা এই টি-সেল। সূত্র : বিজনেস স্ট্যান্ডার্ডস

নিউজনাউ/টিএন/২০২০

Express Your Reaction
Like
Love
Haha
Wow
Sad
Angry
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
Loading...