বাইডেনকেই ভরসা করছে ওয়ালস্ট্রিট

নিউজনাউ ডেস্ক: বিশ্বের চোখ এখনো আটকে আছে মার্কিন নির্বাচনের ফলাফলের দিকে। আর জো বাইডেন জয়ের পথে, সেটা ধরে নেওয়াই যায়। এর আগে নির্বাচনী প্রচারণার সময় ডোনাল্ড ট্রাম্প তার প্রতিদ্বন্দ্বী জো বাইডেনের জনপ্রিয়তাকে ব্যঙ্গ করে চলেছেন শুরু থেকে। কিন্তু সারাবিশ্ব বা মার্কিন মুল্লুক এখন বাইডেনের সঙ্গেই এগিয়ে চলেছেন। বিশেষ করে মার্কিন শেয়ার বাজারের বর্তমান উর্ধ্বগতি জানান দিচ্ছে যে, বাইডেনকেই পছন্দ ওয়ালস্ট্রিটের।

ক্ষমতায় আসার আগেই ডেমোক্রেট প্রার্থীকে স্বাগত জানিয়েছে মার্কিন শেয়ার বাজার। ফেডারেল রিজার্ভের চেয়ারম্যানকে অপমান কিংবা চীনা পণ্যে টানা শুল্ক আরোপ করে মার্কিন কোম্পানিগুলোকেও বিপাকে ফেলেছেন ট্রাম্প।
অর্থনীতিবিদরা মনে করছেন, বাইডেন যদি মার্কিন মসনদে বসেন তবে বিনিয়োগকারীদের ভাগ্য ঘুরে দাঁড়াবে। বাজার অস্থিরতা কমবে, বাণিজ্য নীতি, কূটনৈতিক সম্পর্কে স্থিতিশীলতা ফিরবে।

কে দায়িত্ব নিয়ে করোনায় বিপর্যস্ত যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতি সামাল দেবে, লাখো মানুষের কর্মসংস্থানের কি হবে- এমন পরিস্থিতিতে যুক্তরাষ্ট্রে অক্টোবরেই ৬ লাখ ৩৮ হাজার মার্কিনির কর্মসংস্থান হয়েছে। ফলে কমতে শুরু করেছে বেকারত্ব, কমছে বেকারভাতা নেওয়া মার্কিনির সংখ্যাও। অর্থনৈতিক কার্যক্রমও বেড়েছে, বেকারত্ব ১৪ শতাংশ থেকে ৭ শতাংশে নেমেছে।

হোয়াইট হাউজের কর্তা নির্বাচনের আভাসের পরপরই মার্কিন শেয়ার বাজার ফুলেফেঁপে উটেছে। সময় গড়াচ্ছে, বাইডেন জয়ের কাছাকাছি যাচ্ছেন, শেয়ার বাজারও চনমনে হচ্ছে। ওয়ালস্ট্রিটের ডও জনস, এস এন্ড পি, আর নাসডাক কম্পোসিট সূচক সপ্তাহ জুড়েই চাঙা রয়েছে।

এছাড়া, মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকে ঘিরে চাঙ্গা এশিয়ার শেয়ার বাজার। উর্ধ্বমুখী জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, আর হংকংয়ের শেয়ার বাজারের বিভিন্ন সূচক।
নির্বাচনী উত্তেজনার মাঝে শক্তিশালী ভার্চুয়াল কারেন্সি বিটকয়েনের দাম বেড়েছে। ২০১৮ সালের পর চলতি মাসেই প্রায় ১৫ হাজার ডলারে পৌঁছেছে এক বিটকয়েনের দাম। নিউইয়র্কে একদিনে ৭ শতাংশ পর্যন্ত বেড়েছে এ মুদ্রার দাম। বাজার বিশ্লেষকদের মতে, বিটকয়েনের মূল্য ২০২১ সালে ২০ হাজার ডলারে পৌঁছাতে পারে।

নিউজনাউ/এসএইচ/২০২০

Express Your Reaction
Like
Love
Haha
Wow
Sad
Angry
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
Loading...