খোলেনি রাজধানীর ঐতিহ্যবাহী তিন হল, হতাশ মালিকরা

বিনোদন প্রতিবেদক: করোনা পরিস্থিতে দীর্ঘ আট মাস বন্ধ ছিলো দেশের সকল সিনেমা হল। সুস্থ বিনোদন ও সংশ্লিষ্ট শিল্পকে রক্ষা করতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার শর্তে দেশের সিনেমা হলগুলো খুলে দেওয়া হয়েছে আজ(শুক্রবার) থেকে। এমন মহামারি অবস্থায় দেশের বড় বাজেটের সিনেমা নির্মাতা ও প্রযোজকরা সিনেমা মুক্তি দেওয়ার ঝুকি না নিলেও সারাদেশে মুক্তি পেয়েছে হিরো আলমের প্রযোজিত ও অভিনীত সিনেমা ‘সাহসী হিরো আলম’। সিনেমা হল খুলে দেওয়ার প্রথম দিনে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বেশ কিছু হলে প্রদর্শিত হয়েছে এই সিনেমা। এক মাত্র এই সিনেমাকে কেন্দ্র করে কেমন ছিলো ঢাকার হলগুলোর হালচিত্র?

প্রথম দিনে হলগুলোতে সিনেমা প্রেমীদের আনাগোনা উল্লেখ করার মতো নয়। রাজধানী শহরের জনপ্রিয় ও ঐতিহ্যবাহী চারটি সিনেমা হলে ঝুলতে দেখা গেছে বন্ধের নোটিশ। সিনেমা হল খোলার অনুমতি মিললেও বলাকা, মধুমিতা, জোনাকি, এশিয়ার মতো হলগুলো খোলার পক্ষে নন মালিকরা। তাই আপাতত হল না খোলার সিদ্ধান্তেই অনড় তারা।

এসব হল মালিকদের সাথে কথা হলে তারা জানান, এই পরিস্থিতে হল খোলা সমীচীন মনে করছেন না তারা। ভালো মানের সিনেমা না আসা পর্যন্ত হল বন্ধই রাখা হবে।

তবে, রাজধানী ফার্মগেটের ছন্দ, আনন্দ, ইংলিশ রোডের চিত্রমহল, ডেমরার রানীমহল খুলে দেয়া হয়েছে। এসব হলে চলছে ‘সাহসী হিরো আলম’।

হলগুলোতে দর্শকদের মাস্ক পরে সিনেমা হলে প্রবেশ নিশ্চিত করছে কর্তৃপক্ষ। দর্শকরা মাস্ক পরে না আসলে টিকেটের সঙ্গে মাস্ক ফ্রি দিচ্ছেন তারা। ফার্মগেটের আনন্দ, ছন্দ হলের টিকেট কাউন্টারের সামনে তার প্রমাণও পাওয়া গেলো।

স্থানীয় রিকশাচালক আফজাল হিরো আলমের ছবি দেখতে এসেছেন। সর্বশেষ তিনি এই হলেই শাকিব খানের পাসওয়ার্ড দেখেছেন বলে জানান। মাস্ক না পরে টিকেট কাটতে গেলে তাকে মাস্ক ফ্রি দেন হলের পক্ষ থেকে। দীর্ঘদিন পর হল খোলায় এই হলের কর্মচারীদের মধ্যেও দেখা যায় উৎসবের আমেজ।

শুক্রবার হল খোলায় সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা যেনো নতুন করে প্রাণ পেয়েছেন। মর্নিং শো’তে দর্শকদের উপস্থিতি আশানুরূপ না থাকলেও দুপুরের শো’তে ভালোই দর্শক হয়েছে।
নিউজনাউ/এনএইচএস/২০২০

Express Your Reaction
Like
Love
Haha
Wow
Sad
Angry
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
Loading...