ক্ষমা চাইলেন মুনমুন

নিজস্ব প্রতিনিধি: সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সম্প্রতি ছড়িয়ে পড়া মসজিদের সামনে চিত্রনায়িকা মুনমুনের একটি নাচের ভিডিওতে সমালোচনার শিকার হন মুনমুন। নাচের বিষয়টি নিয়ে দুঃখপ্রকাশ করে মুনমুন বলেন, আমি অতটা অসচেতন নই যে মসজিদের সামনে ডান্স করবো, জানলে সেখানে বসতামই না।

মুনমুন বলেছেন,আমার ধারণা ছিল না টিনের ঘরে মসজিদ থাকতে পারে। সাইনবোর্ড টানানো আমি খেয়াল করিনি।ঘটনার বিষয়ে মুনমুন আরও বলেন, আমি একজন মুসলিম নারী, পাশাপাশি চলিচ্চিত্র নায়িকা। দীর্ঘদিন ধরে দেশের বিভিন্ন মেলার মাঠে অনুষ্ঠান করেছি। ডান্স করা আমার পেশা।সখিপুর এলাকার কমিশনার ও গণ্যমান্যদের দাওয়াতে গিয়েছিলাম আমি। একপর্যায় কমিশনার মিল্টন ভাই অনুরোধ করেন আপনার একটি ডান্স দেখতে চাই। আমি বলেছিলাম এখানে ডান্স করা সম্ভব না। তারা অনুরোধ করে বলেন, আপনার অনেক ভক্ত এখানে আসছে, ডান্স না করলে তাদের মন খারাপ হবে। তাই তাদের অনুরোধে আমি ডান্স করি।

আমন্ত্রিতদের কথা রাখতে গিয়ে আমি এতকিছু ভাবিনি। ছবিতে যে সাইনবোর্ড দেখা যাচ্ছে ওটা আমার পেছনে ছিল, আমি দেখনি।এরপর ঢাকায় আসি। খবর পাই একটি ভিডিও পোষ্ট হয়েছে, আমাকে নেগটিভভাবে প্রচার করা হচ্ছে।এরপর ওখানের প্রশাসনের সঙ্গে আমার কথা হয়। তারা বলেন, আপনার পোশাক অশ্লীল না। আপনি অশ্লীল কোনো অঙ্গভঙ্গি করেননি। ওখানে মসজিদ ছিল কিন্তু নদীতে বিলীন হয়ে গেছে। অন্য পাশে মসজিদ ছিল সেই সাইনবোর্ড এখানে টাঙানো হয়েছে। নতুনভাবে লেখা সাইনবোর্ড।যারা বলছেন আমি ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হেনেছি। আপনারা কীভাবে ভাবলেন আমি এটা করেছি। আমি নিজে ধর্মপ্রাণ মুসলিম। এই কাজ করা আমার পক্ষে অসম্ভব। তারপরেও যদি ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানে আমি আল্লাহর কাছে ক্ষমা-প্রার্থী। মানুষ মাত্র ভুল করেন। আপনাদের বোন হিসেবে এবং প্রিয় নায়িকা হিসেবে ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবেন।

নিউজনাউ/এমএম/২০২০

Express Your Reaction
Like
Love
Haha
Wow
Sad
Angry
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
Loading...