জাহাঙ্গীরনগর বিশ্বদ্যিালয়ের ক্যান সোসাইটির ওয়েবিনার অনুষ্ঠিত

0 151

নিজস্ব প্রতিবেদক: লাইফ হ্যাকস উইথ দ্য এক্সপার্ট শিরোনামে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্বদ্যিালয়ের সাইবার ক্রাইম অ্যাওয়ার্নেস এন্ড নেটওয়ার্ক সোসাইটি প্রথমবারের মতো আয়োজন করেছে ওয়েবিনার।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ইন্সটিটিউট অব ইনফরমেশন টেকনোলোজি বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী শাহরিয়ার ইসলাম হিমেল ও তাসনীম তাইয়্যিবা জান্নাতের সঞ্চালনায় এ ওয়েবিনারটিতে বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের প্রথম এবং একমাত্র এন্টিভাইরাস কোম্পানি রিভ এন্টি ভাইরাসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার মার্কেটিং ইবনুল করিম রূপেন।

অনলাইনে অনুষ্ঠিত এ ওয়েবিনারে আলোচনা করা হয় অনলাইন নিরাপত্তার গুরুত্ব, নিরাপদ থাকতে সাধারণ এবং টেকনিক্যাল মানুষের করণীয়, ফিশিং লিংক থেকে থেকে প্রতিরোধের উপায়সহ সাইবার সিকিউরিটি ফিল্ডে কিভাবে ক্যারিয়ার করা যায় এসব বিষয়ে।

বিস্তারিত আলোচনায় ইবনুল করিম রূপেন বলেন, বেশিরভাগ সময় সাধারণ ব্যবহারকারীরা অনলাইন নিরাপত্তাহীনতায় বেশি ভোগে। কারণ বাংলাদেশের অধিকাংশ ব্যবহারকারীরা  অনলাইন নিরাপত্তা সম্পর্কে অসচেতন। এইজন্য তিনি বাংলাদেশে সাইবার ক্রাইম অ্যাওয়ার্নেসের উপর গুরত্বারোপ করেন।

এছাড়া সাইবার ক্রাইমের একটা বড় অংশ সংগঠিত হয় ফিশিংয়ের মাধ্যমে ফিশিং সাইট বা লিংক চিনার উপায় সম্পর্কে ইবনুল করিম রূপেন বলেন, ফিশিং লিংক গুলো সাধারণত ছড়ায়  কোন লোভনীয় প্রস্তাবের মাধ্যমে। যেমন বেশ কয় দিন আগে  আমরা দেখতে পেয়েছিলাম একটা  লিংক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়েছিলো যে বিকাশ ৫০০ টাকা দিচ্ছে আবার এটাও ছড়াচ্ছিলো যে  নেটফ্লিক্স ৩ মাসের  সাবস্ক্রিপশন ফ্রি দিচ্ছে যার কোনটিই অথেনটিক না।

কারণ যে লিঙ্কের মাধ্যমে  ছড়াচ্ছিলো সেটি নেটফ্লিক্স কিংবা বিকাশ কারোই নিজস্ব লিঙ্ক নয়। এই সকল লিংকে ক্লিক করার সাথে সাথে আমরা আমাদের গুরত্বপূর্ন  তথ্য হারাচ্ছি এবং এতে আমাদের আইডি হ্যাক হবার সম্ভাবনা বাড়ছে।

আলোচনায় আরো জানা যায় বাংলাদেশের  শতকরা প্রায় ৫২ ভাগ অভিযোগই আসে নারীদের থেকে৷ সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হচ্ছেন ১৮ থেকে ৩০ বছর বয়সী মেয়েরা। শতাংশের হিসাবে যা প্রায় ৭৪ শতাংশ।

অভিযোগকারীদের একটি বড় অংশের অভিযোগ ফেসবুক সংক্রান্ত৷ যার মধ্যে আইডি হ্যাক থেকে শুরু করে সুপার ইম্পোজ ছবি এবং পর্নোগ্রাফির মতো ভয়াবহ অভিযোগও রয়েছে ৷

এই প্রসঙ্গে প্রশ্ন রাখলে এই রিভ এন্টিভাইরাসের কর্ণধার বলেন, যেকোনো সন্দেহজনক লিঙ্ক যেমন বলা হলো এই লিংকে আপনার কিছু বাজে ছবি আছে,  সেটি যদি আপনার আত্মীয়ও কেউ দিয়ে থাকে সেখানে প্রবেশ করা থেকে বিরত থাকুন, হতে পারে তার আইডি হ্যাকড বা এই মেসেজ সম্পর্কে তিনি নিজেই অবগত নন। এইধরনের অনলাইন হেনস্থার শিকার হলে বিষয়টি নিকট আত্মীয় বা বন্ধু বান্ধবদের অবগত করতে বলেন তিনি।

বাংলাদেশে বর্তমানে ইথিক্যাল হ্যাকিংয়ের উপর গুরুত্ব আরোপ করেন তিনি। সাইবার অপরাধ দমনে ও প্রতিষ্ঠানের নিরাপত্তায় ইথিক্যাল হ্যাকার তথা সাইবার সিকিউরিটি স্পেশালিষ্ট অনিবার্য। ২০২৫ সাল নাগাদ এই দেশে প্রায় সাড়ে পাঁচ লক্ষ সাইবার সিকিউরিটি স্পেশালিষ্ট  প্রয়োজন। এবং যেকোনো ব্যাকগ্রাউন্ড থেকেই  সাইবার সিকিউরিটি ফিল্ডে ক্যারিয়ার গড়া সম্ভব বলে জানান ইবনুল করিম রূপেন।

এ সময় তিনি  জাহাঙ্গীরনগর বিশ্বদ্যিালয়ের সাইবার ক্রাইম অ্যাওয়ার্নেস এন্ড নেটওয়ার্ক সোসাইটির কার্যক্রমের প্রশংসা করেন এবং সাফল্য কামনা করেন।

ওয়েবিনারের ২য় এপিসোড অনুষ্ঠিত হবে শুক্রবার (২২ মে) রাত ৮টায়। সেখানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন ক্লাসরুম বিডির চীফ ইকুইজিশন অফিসার (সিএও) মো: সোহাগ খান। এ এপিসোডে আলোচনা করা হবে কর্পোরেট মাইন্ডসেট এবং সেলফ ব্র্যান্ডিং নিয়ে।

নিউজনাউ/টিএন/২০২০

Express Your Reaction
Like
Love
Haha
Wow
Sad
Angry
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
Loading...