৮১ গ্রামের মানুষ পানিবন্দী, খোঁজ নিচ্ছেনা কেউই

শামীম আহমেদ,বরিশাল ব্যুরো: বরিশালের বানারীপাড়ায় বর্তমানে হাজারো পরিবার পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। ফলে নিন্মবিত্ত পরিবারগুলো অনেকটা আবাসন ও খাদ্য সংকটে পড়েছে।

টানা বর্ষণের প্রভাবে উপজেলার ভয়াল সন্ধ্যা নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে পৌর শহর সহ উপজেলার ৮ ইউনিয়নের বিস্তীর্ণ এলাকার বেশিরভাগ অংশ পানির নিচে তলিয়ে গেছে।

উপজেলার ৮১ গ্রামের লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দী হয়ে এক প্রকার মানবেতর জীবন-যাপন করছেন।

ঘের সহ শতাধিক পুকুরের চাষ করা বিভিন্ন জাতের লাখ লাখ টাকার মাছ পানিতে ভেসে গেছে। মৎস্য চাষি ও সবজি সহ ফসলের ক্ষেত বিনষ্ট হয়ে কৃষকের মাথায় হাত পড়েছে।

চারদিকে থৈ থৈ পানির কারণে হাস-মুরগী ও গবাদি পশু নিয়ে মানুষ পড়েছে মহা বিপাকে। অনেক পরিবার স্থানীয় সাইক্লোন শেল্টারে আশ্রয় নিয়েছেন।

করোনাকালীণ পানিবন্দী হয়ে পড়া এ যেন ‘মরার ওপর খাড়ার ঘা’। সব মিলিয়ে এলাকার নিম্ন ও মধ্য বিত্ত পরিবারগুলো নতুন করে আবার বিপদগ্রস্ত হয়ে পড়েছেন। এসব পরিবারের মাঝে দেখা দিয়েছে খাদ্য সংকট। পানি বাহিত রোগে আক্রান্ত হয়ে পড়ছেন অনেকে।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) বরিশালের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো. মাসুম জানান অমাবস্যার প্রভাবে সাগরে অস্বাভাবিক জোয়ার ও উজানের পানি মেঘনার দিকে প্রবাহিত হওয়ায় বরিশালের সবগুলো নদ-নদীতে পানি বৃদ্ধি পেয়েছে।

এ ব্যাপারে বানারীপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ আব্দুল্লাহ সাদীদ নিউজনাউকে বলেন, জোয়ার ভাটায় পানি ওঠা নামা করায় এ সংকট স্থায়ী নাও হতে পারে।তারপরেও পরিস্থিতি মোকাবেলায় জনপ্রতিনিধিসহ সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। পর্যাপ্ত বিশুদ্ধ পানি ও শুকনা খাবার রয়েছে যা প্রয়োজনে বিতরণ করা হবে বলেও তিনি জানান।

 

এদিকে গত কয়েকমাস পর্যন্ত পৌরসভা সহ উপজেলার ৮১ গ্রামের হাজারো পরিবার পানিবন্দী থাকলেও সরকারি এবং বেসরকারি পর্যায় খেকে ভুক্তভোগীদের সহায়তা করা হয়নি বলে অভিযোগ রয়েছে।
নিউজনাউ/এফএফ/২০২০

Express Your Reaction
Like
Love
Haha
Wow
Sad
Angry
Loading...