৫০ শতাংশ ওয়েভারের দাবি আইআইইউসির শিক্ষার্থীদের

চবি প্রতিনিধি:
করোনা মহামারির দুর্যোগের কারণে সেমিস্টার ও টিউশন ফি’র উপর ৫০ শতাংশ ওয়েভারের (ভর্তুকি) দাবিতে মানববন্ধন করেছে চট্টগ্রাম আন্তর্জাতিক ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয়ের (আইআইইউসি) শিক্ষার্থীরা।

রবিবার (১২ জুলাই) সকাল ১১টায় চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সামনে আইআইইউসির সাধারণ শিক্ষার্থীরা এ মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করে।

মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা ৪টি দাবি উপস্থাপন করেন। এগুলো হলো-

১) সেমিস্টার ও টিউশন ফি’র উপর কোন ধরনের শর্ত ব্যতীত ৫০ শতাংশ ওয়েভার প্রদান এবং সেই সাথে অন্যান্য ওয়েভার (জিপিএ, সিবলিং) থেকে আলাদা রাখা।

২) টাকা জমাদানের শেষ সময় ২০ আগস্ট পর্যন্ত পর্যন্ত বর্ধিত করতে হবে; সেমিস্টার ফি আদায়ে জরিমানা আদায় করা যাবেনা।

৩) অটাম-১৯ সেশনের যাদের বকেয়া আছে, তাদেরকেও ইউজিসির গাইডলাইনের অনুচ্ছেদ ৪,৫,৬,৭ মান্য করে অর্থ প্রদানের জন্য চাপ প্রয়োগ থেকে বিরত থাকতে হবে।

৪) নূন্যতম ১০ হাজার টাকা প্রদানেই রেজিস্ট্রেশন সম্পূর্ণ করে পরীক্ষা দেয়ার অনুমতি দিতে হবে, এক্ষেত্রেও ইউজিসির গাইডলাইন ৪,৫,৬,৭ অনুসরণ করতে হবে।

এর আগে গত ২ এপ্রিল স্নাতক শ্রেণীর নতুন সেমিস্টারের অনলাইন ক্লাস ৪ এপ্রিল শুরুর কথা বিশ্ববিদ্যালয়ের অতিরিক্ত রেজিস্টার মো. সুলাইমান মিয়া স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে জানালেও শিক্ষার্থীরা তা প্রত্যাখ্যান করে ৫০ শতাংশ (সেমিস্টার ও টিউশন) বর্ধিত করাসহ ৪টি দাবি জানায়। তবে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন শুধু টিউশন ফি’র উপর ২০ শতাংশ ছাড়ের ঘোষণা দেয়। ফলে চলতি মাসের ৪ তারিখ থেকে শুরু হওয়া অনলাইন ক্লাস বর্জন করে আসছে আইআইইউসি শিক্ষার্থীরা।

এ বিষয়ে আইআইইউসির ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের আউটগোয়িং শিক্ষার্থী সাইফুজজামান নিউজনাউকে জানান, ‘বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে আইআইইউসি এই করোনাকালে অমানবিক আচরণ করে আসছে। মানুষের নুন আনতে পানতা ফুরায় অবস্থা। এখানে বেশিরভাগ শিক্ষার্থীর পরিবার প্রধানের আয় উপার্জন সীমিত হয়ে গেছে। এমন পরিস্থিতিতে শিক্ষার্থীরা ওয়েভার চাচ্ছে। এ মুহূর্তে সাধারণ শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে নেওয়া বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের নৈতিক দায়িত্ব।’

নিউজনাউ/পিপিএন/২০২০

 

Express Your Reaction
Like
Love
Haha
Wow
Sad
Angry
Loading...