সুনামগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জে গত দুদিন ভারি বৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ড জানিয়েছে, ভারতের আসাম ও মেঘালয় রাজ্যে বৃষ্টিপাত বাড়লে সুরমা নদীতে পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকবে।

শনিবার (১১ জুলাই) সকাল থেকে সুনামগঞ্জ পৌর শহরের ষোলঘর পয়েন্টে সুরমা নদীর পানি বিপৎসীমার ৫৪ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ফলে সুনামগঞ্জ জেলার ১১টি উপজেলার চারটি পৌরসভা ও ৮২টি ইউনিয়ন বন্যাকবলিত হয়ে পড়ে। পানিবন্দী হয়ে পড়েছে কয়েক লক্ষাধিক মানুষ।

এদিকে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় সুনামগঞ্জ পৌর শহরের উকিলপাড়া,কাজির পয়েন্ট, হোসেন বখত চত্বর, কালিবাড়ী এলাকার রাস্তাগুলো পানি ঢুকতে থাকে। এ ছাড়াও শহরের উত্তর আরপিন নগর, নতুনপাড়া, বড়পাড়া, মল্লিকপুর পশ্চিম তেঘরিয়া, কাজির পয়েন্ট, উকিলপাড়া,কালিবাড়ী, হোসেন বখত চত্বর এলাকাসহ বেশি কয়েকটি এলাকায় ঘরবাড়িতে পানি প্রবেশ করেছে। এমনকি জেলা সদরের সাথে বিশ্বম্ভরপুর-কাচিরগাতি, নিয়ামতপুর-তাহিরপুর, জামালগঞ্জ-সুনামগঞ্জ, দোয়ারাবাজার-সুনামগঞ্জ, দিরাই-শাল্লার, ছাতক-গোবিন্দগঞ্জ সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে। পানিবন্দী মানুষ বলছেন,বন্যায় ঘরবন্ধী হয়ে আছি,কিন্তু কেউ আমাদের কোন সাহায্য সহযোগিতা করছে না।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শরীফুল ইসলাম নিউজনাউকে বলেন, বন্যাকবলিত মানুষের মাঝে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে শুকনো খাবার বিতরণ করা হচ্ছে যদি কেউ যদি শুকনো খাবার বিতরণে অনিয়ম করে তাহলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

গেল ২৬ জুন উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল ও টানা বৃষ্টিপাতের ফলে সুনামগঞ্জে বন্যা দেখা দেয়।পরবর্তীতে ২৯ জুন থেকে সুরমা নদীর পানি কমতে শুরু করলে হাওরাঞ্চল ও নদী তীরবর্তী এলাকাগুলো থেকে পানি নেমে যায়।

নিউজনাউ/এসএ/২০২০

Express Your Reaction
Like
Love
Haha
Wow
Sad
Angry
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
Loading...