রংপুরে সুস্থতার হার ৯৩, মৃত্যুর হার ৭ শতাংশ

রংপুর ব্যুরোঃ রংপুরের ডেডিকেটেড করোনা আইসোলেশন হাসপাতাল থেকে সুস্থ হয়ে আরো ছয়জন বাড়ি ফিরেছেন।

করোনামুক্ত হওয়ায় বৃহস্পতিবার (২৩ জুলাই) বিকেলে ওই ছয়জনকে ছাড়পত্র প্রদান করা হয়।

ছাড়পত্র পাওয়া ব্যক্তিরা হলেন, গাইবান্ধা জেলার বাসিন্দা সাদ মণ্ডল (৫২) ও সাইদুর (৬৫), জয়পুরহাট জেলার মহিউদ্দিন (৩১), রংপুর শহরের বাসিন্দা আখতরুজ্জামান (৫৮) ও আতাউর রহমান (৩৯) এবং রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার সহিদুল ইসলাম ( ৫৮) ।

বিদায় বেলায় হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়কসহ চিকিৎসকরা তাদেরকে ফুল ও চিঠি দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।

ডেডিকেটেড করোনা আইসোলেশন হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. এস.এম. নূরুন নবী নিউজনাউকে জানান, শাদ মণ্ডল গত ১২ জুলাই, মহিউদ্দিন ও আতাউর ১৩ জুলাই, আখতারুজ্জামান ও সাইদুর ১৪ জুলাই এবং সহিদুল ১৭ জুলাই ডেডিকেটেড করোনা আইসোলেসন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন।
এই ছয়জনের শরীরে কোভিড-১৯ এর উপসর্গ না থাকায় এবং নমুনা পরীক্ষা করে নেগেটিভ রিপোর্ট পাওয়ায় বৃহস্পতিবার তাদের ছাড়পত্র প্রদান করা হয়েছে।

এ নিয়ে মোট ২৬০ জন এই হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র নিয়ে বাড়ি ফিরলেন।
এছাড়া বুধবার (২২জুলাই) বিকাল ৫ টায় ইসহাক আলী (৬২) ও রাত ১২ টায় মাওলানা আনসার আলী (৬৫) নামে দুইজন করোনা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। ইসহাক আলী ঠাকুরগাঁও জেলার ও আনসার আলী রংপুর জেলার পীরগঞ্জ থানার বাসিন্দা।

ইসহাক গত ২১ জুলাই ও আনসার আলী ২২ জুলাই মুমূর্ষ অবস্থায় ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালে ভর্তি হন। এ নিয়ে হাসপাতালে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ২১ জনে।

তিনি আরো জানান, হাসপাতাল চালু হবার পর থেকে এ পর্যন্ত ৩২২ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন এবং ২৬০জন সুস্থ হয়ে এই হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন। এই হাসপাতালে সুস্থতার হার ৯২ দশমিক ৫২ এবং মৃত্যু হার ৭ দশমিক ৪৮ শতাংশ।

বর্তমানে হাসপাতালে ৩৮ জন কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছেন বলেও তিনি জানান।
নিউজনাউ/এফএফ/২০২০

Express Your Reaction
Like
Love
Haha
Wow
Sad
Angry
Loading...