মেয়েকে ধর্ষণ: প্রতিবাদ করায় বাবাকে পিটিয়ে আহত

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে মেয়েকে নির্যাতন, ধর্ষণ ও ঘর থেকে তুলে নিয়ে গুম করার প্রতিবাদে মেয়ের বৃদ্ধ বাবাকে রড দিয়ে পিটিয়ে আহত করার ঘটনায় মামলা হয়েছে।

নির্যাতিতা মেয়ে বাদী হয়ে তাকে ধর্ষণ ও অপহরণ এবং বাবাকে মারধরের অভিযোগে থানায় মামলা দায়ের করেন।

মঙ্গলবার রাতে জগন্নাথপুর থানায় নির্যাতিত ঐ নারী ৫ জনকে আসামী করের মামলা করেন।
এ ঘটনায় আটককৃত লিটন মিয়া, আকাই মিয়া, ইলিয়াছ মিয়া ও আলম মিয়া ৪ জনকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।
প্রধান আসামি শামিম পলাতক রয়েছে। আসামীদের আজ বুধবার আদালতে নেয়ার কথা রয়েছে।

জগন্নাথপুর থানার ওসি (তদন্ত) মুসলেহ উদ্দিন আহমেদ জানান,উদ্ধার হওয়া ঐ নারী তাকে ধর্ষণ, অপহরণ ও তার বাবাকে নির্যাতনের ঘটনায় ৫ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছেন। আটক ৪ জনকে মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হচ্ছে।

প্রধান আসামী শামীমকে ধরতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে। ঘটনাস্থল পরিদর্শনে গিয়েছেন পুলিশ সুপার।

উল্লেখ্য গত সোমবার রাতে স্বামী পরিত্যক্তা মেয়ের বাবাকে উপজেলার পাইলগাঁও ইউনিয়নের আলীগঞ্জ বাজারের কলোনির ভাড়া বাসা থেকে ধরে নিয়ে গিয়ে রড দিয়ে পিটিয়ে আহত করে পার্শ্ববর্তী গুতগাঁও গ্রামের শামীম আহমদ ও তার লোকজন।

উল্লেখ্য সোমবার রাতে মেয়েকে ধর্ষণ অপহরণের প্রতিবাদ করায় শামীম আহমেদর লোকজন মেয়ের বৃদ্ধ বাবাকে জোর করে শামীমের বাড়িতে ধরে নিয়ে যায় এবং লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে মারধর করে’। পরে স্থানীয় লোকজন ঐ বৃদ্ধকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা দেন।

এসময় ঘটনাটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে পুলিশ খবর পেয়ে সোমবার ভোর রাতেই অভিযান চালিয়ে আলীগঞ্জ বাজারের পার্শ্ববর্তী গুতগাঁও গ্রাম থেকে ৪ জনকে আটক করে পুলিশ।

নিউজনাউ/এফএফ/২০২০

Express Your Reaction
Like
Love
Haha
Wow
Sad
Angry
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
Loading...