বরিশালে বসছে না কোরবানি পশুর অস্থায়ী হাট

শামীম আহমেদ, বরিশাল ব্যুরো: প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে সকলকে দূরে রাখা সহ সামাজিক সু-রক্ষা বজায় রাখার লক্ষ্যে আসন্ন পবিত্র ঈদুল আযহায় বরিশাল মহনগরীসহ জেলার ১০ উপজেলায় কোরবানির পশুর হাটের সংখ্যা বিগত দিনের চেয়ে অর্ধেকে নিয়ে আসা হয়েছে।

বিগত বছরগুলোতে কোরবানিকে কেন্দ্র করে বিভিন্নস্থানে স্থায়ী পশুর হাটের পাশাপাশি অস্থায়ী পশুর হাট বসানো হলেও এবার করোনার প্রাদুর্ভাবের কারণে প্রশাসনের পক্ষ থেকে কঠোর বিধি নিষেধ আরোপ করা ও উদ্যোক্তাদের আগ্রহ কম থাকায় এবার অস্থায়ী কোনো পশুর হাট থাকবে না।

আগামী ২৫ জুলাই থেকে ৫ দিনের জন্য শুধুমাত্র স্থানীয় পশুর হাটে পশু বিক্রয় করা যাবে।

বরিশাল (বিসিসি) হাট-বাজার শাখার পরিদর্শক মো. আবুল কালাম আজাদ নিউজনাউকে বলেন, বরিশাল নগরীর বাঘিয়া ও হাটখোলা কসাইখানা এলাকায় স্থায়ী দুটি পশুর হাট রয়েছে। অন্যদিকে বিগত বছর কোরবানি উপলক্ষে বিসিসি স্থায়ী পশুর হাট ছাড়া অস্থায়ী পশুর হাটের অনুমোদন দেয়া হত। এছাড়া গত বছরও বরিশালে ৪টি পশুর হাট বসেছি।

আসন্ন পবিত্র ঈদুল আজহার এখনো দু’সপ্তাহ বাকি থাকলেও আজ শনিবার (১৮ জুলাই) পর্যন্ত অস্থায়ী পশুর হাটের জন্য বিসিসিতে কেউ আবেদন করেনি।

এ কারণে ঈদুল আজহার ৫ দিন আগে নগরের অনুমোদিত দুটি স্থায়ী পশুর হাটে পশু বিক্রি করতে পারবে। সে হিসাব অনুযায়ী ২৫ জুলাই থেকে নগরীতে শুরু হবে কোরবানির পশু বিক্রি।

বিসিসি হাট পরিদর্শক আবুল কালাম আরো বলেন, ২৫ জুলাইয়ের আগে অস্থায়ী হাটের আবেদন পাওয়া গেলে অনুমোদনের বিষয়গুলো ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ বিবেচনা করবে।

বর্তমান করোনা সংক্রমণের কারণে দুটি পশুর হাট ইজারা দিতে না পারায় বিসিসি নিজেরাই হাট পরিচালনা করবে বলে জানিয়েছেন।

অপরদিকে বরিশাল জেলা প্রশাসন কার্যালয় সূত্র জানায়, বরিশাল জেলার ১০ উপজেলায় এবার পশুর হাট বসবে ৩৫টি, গত বছর এর সংখ্যা ছিল ৬৬টি। জেলা ও উপজেলাগুলোতে স্থায়ী কোরবানির পশুর হাট বসানোর জন্য অনুমতি দেয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে বরিশাল জেলা প্রশাসক এস.এম অজিয়র রহমান নিউজনাউকে বলেন, এ বছর কোরবানির পশুর হাটে স্বাস্থ্যবিধিকে গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। যে কারণে বিগত সময়ের চেয়ে এবার কম সংখ্যক পশুর হাট বসবে। এছাড়া সব কয়টি পশুর হাটে স্বাস্থ্যবিধিকে নিশ্চিত করার জন্য স্বাস্থ্য উপজেলা প্রশাসনকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

বরিশাল বিভাগীয় প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক ডা. কানাই লাল স্বর্ণকার নিউজনাউকে জানান, বরিশাল সহ বিভাগের প্রতিটি পশুর হাটে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের বিশেষ ভেটেরিনারি মেডিকেল টিম মাঠে উপস্থিত থাকবে।

তিনি আরো বলেন, এসময়ে পশু হাটে যাতে করে কেউ রোগা পশু হাটে বিক্রি করতে না পারে সে ব্যাপারে মাঠে নজর রাখবে ভেটেরিনারি মেডিকেল টিম।

নিউজনাউ/এফএফ/২০২০

Express Your Reaction
Like
Love
Haha
Wow
Sad
Angry
Loading...