জমানো টাকা প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দিলেন মুক্তিযোদ্ধা

পাবনা প্রতিনিধি: করোনাকালীন দুর্যোগে মানুষের খাদ্যের কষ্ট দেখে মনকষ্টে ভুগছিলেন পাবনার বেড়া পৌর সদরের নতুনপাড়া মহল্লার বাসিন্দা মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কুদ্দুস।

তাই নিজের ঘর মেরামতের জন্য জমিয়ে রাখা ৩৬ হাজার টাকা সেইসব মানুষের জন্য প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দান করলেন তিনি। মানুষের পাশে দাঁড়াতে মহানুভবতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কুদ্দুস।

দরিদ্র মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কুদ্দুস দৈনিক ১০০ টাকা হাজিরায় বেড়া পৌরসভা কার্যালয়ে প্রায় ২১ বছর ধরে পিয়নের কাজ করেন। পাশাপাশি প্রতি মাসে মুক্তিযোদ্ধা ভাতা পান ১২ হাজার টাকা। সেই ভাতা ও পৌরসভা থেকে মাসিক ৩ হাজার টাকায় কোনমতে চলে তার সংসার। তাঁর দুই ছেলে ও তিন মেয়ে। মেয়েদের বিয়ে দিয়েছেন। আর ছেলেদের মধ্যে এক ছেলে মাছ ধরার কাজ এবং অন্য ছেলে গরু বিক্রির সময় মধ্যস্থতাকারীর কাজ করেন। নিজের ভাঙাচোরা ঘর মেরামতের জন্য তিন মাসের ভাতা ১২ হাজার টাকা জমা করেছিলেন তিনি।

শুক্রবার (২৪ এপ্রিল) বিকেলে বাড়ির কাছে শহীদ আবদুল খালেক স্টেডিয়ামে কর্মহীন মানুষের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম চলতে দেখেন। ওই সময় সেখানে গিয়ে খাদ্যের জন্য মানুষের দীর্ঘলাইন দেখে মনের মধ্যে কষ্ট অনুভব করেন। পরে ঘর মেরামতের সিদ্ধান্ত বাতিল করে বাড়ি থেকে টাকা নিয়ে সেখানে উপস্থিত হন। পরে  স্থানীয় সংসদ সদস্য শামসুল হক টুকু ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আসিফ আনাম সিদ্দিকীর মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দেয়ার জন্য জমানো ৩৬ হাজার টাকা প্রদান করেন  মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কুদ্দুস।

এ সময় আবদুল কুদ্দুস  বলেন, ‘আমার ঘর ভাইঙে গ্যাছে মেলাদির ধইরে। টেকার অভাবে শারবেরও পারতিছি না। পরে বাধ্য হয়া তিন মাসের ভাতার টেকা গুছাইছিলেম। কিন্তু করোনায় মানুষের কষ্ট দেইখা মনের মধ্যে অস্থির লাগতিছিল। তাই টেকাগুল্যান প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠায়া দিলেম। ঘর তো আমি পরেও দিব্যার পারব।’

বেড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আসিফ আনাম সিদ্দিকী বলেন, আর্থিকভাবে অসচ্ছল বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কুদ্দুস প্রকৃত পক্ষেই মহানুভবতার পরিচয় দিয়েছেন। যা অনেকের জন্য দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে। এভাবেই তো মানুষ মানুষের পাশে দাঁড়ায়। তাঁর দান করা ৩৬ হাজার টাকা জেলা প্রশাসনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে পাঠানো হবে বলেও জানান ইউএনও।

নিউজনাউ/এফএফ/২০২০

Express Your Reaction
Like
Love
Haha
Wow
Sad
Angry
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
Loading...