ওয়াহিদা খানমের অবস্থা গুরুতর, আনা হয়েছে ঢাকায়

নিজস্ব প্রতিবেদক: সরকারি বাসভবনে ঢুকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) ও তার বাবাকে কুপিয়ে জখম করেছে দুর্বৃত্তরা।

গুরুতর আহত দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলার ইউএনও ওয়াহিদা খানমকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকা আনা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার বেলা সোয়া ২টার দিকে তাকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে ঢাকায় আনা হয়। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে রাজধানীর নিউরো সাইন্স হাসপাতালে ভর্তি করার কথা রয়েছে।

চিকিৎসকরা জানান, ইউএনওর অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায়, তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

বুধবার রাত ৩টার দিকে ইউএনও ওয়াহিদা খানমের বাসভবনের বাথরুমের ভেন্টিলেটর ভেঙে ঢুকে পড়ে দুর্বৃত্তরা।

পরে দুর্বৃত্তরা ইউএনওকে ধাতব পদার্থ দিয়ে মাথায় আঘাত করে। এ সময় তার বাবা এগিয়ে আসলে, তাকেও আঘাত করে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। গুরুতর আহত দু’জনকে উদ্ধার করে রংপুরে নেয়া হয়। এরপর, ওয়াহিদা খানমকে ডক্টরস মেডিক্যালের আইসিইউতে, আর তার বাবাকে ভর্তি করা হয় রংপুর মেডিক্যালে।

রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের নিউরো সার্জারির বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক তোফায়েল হোসেন ভুঁইয়া জানান, তাকে ভারি ধাতব পদার্থ দিয়ে আঘাত করা হয়েছে। এতে তার মাথার বাম পাশের হাড় ফেটে বসে গেছে। এ কারণে তার শরীরের ডান অংশ প্যারালাইজড হয়ে গেছে। এছাড়া মাথার ভিতরে রক্ত জমাট বেঁধেছে বলেও জানান চিকিৎসক। তবে, তাৎক্ষণিকভাবে ওষুধ দিয়ে তার জ্ঞান ফেরানো হয়েছে।

এদিকে, কারা এবং কী কারণে এ হামলা চালিয়েছে, তা খতিয়ে দেখছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। র‌্যাব-১২ অধিনায়ক রেজা আহমেদ জানান, কারা কী কারণে হামলা করেছে তা তদন্ত করে বের করা হবে।

খবর পেয়ে সকালে জেলা প্রশাসক মাহমুদুল আলম ও পুলিশ সুপার আনোয়ার হোসেনসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

নিউজনাউ/এফএফ/২০২০

Express Your Reaction
Like
Love
Haha
Wow
Sad
Angry
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
Loading...