গাইবান্ধায় বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি

গাইবান্ধা প্রতিনিধি:
গাইবান্ধায় নদ-নদীর পানি কমলেও ব্রহ্মপুত্র ও ঘাঘট নদীর পানি বিপৎসীমার উপরে থাকায় গাইবান্ধায় সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে।

ব্রহ্মপুত্রের পানি ফুলছড়ি পয়েন্টে বিপৎসীমার ৬৮ সেন্টিমিটার এবং ঘাঘট নদীর পানি গাইবান্ধা পয়েন্টে বিপৎসীমার ৪৪ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। জেলার সুন্দরগঞ্জ, গাইবান্ধা সদর, ফুলছড়ি ও সাঘাটা উপজেলার চর এবং নদীতীরবর্তী ৩০টি ইউনিয়নের প্রায় দুই লক্ষাধিক মানুষ এখনও পানিবন্দী অবস্থায় মানবেতর জীবন যাপন করছেন। গত তিনদিনের টানা বৃষ্টিতে দুর্গত মানুষের দুর্দশা আরও বাড়িয়ে দিয়েছে।

জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বন্যার্ত মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করা হলেও অনেক চরাঞ্চলে পানিবন্দী মানুষ এখনও ত্রাণ না পাওয়ার অভিযোগ করেছেন।

বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ, উঁচু রাস্তার ধারে এবং বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আশ্রয় নেয়া বানভাসি মানুষেরা চরম খাদ্য সংকটে পড়েছেন।

এদিকে দুর্গত এলাকায় নদী ভাঙন অব্যাহত থাকায় চরম হুমকির সম্মুখীন হয়ে পড়েছে ফুলছড়ি উপজেলার এরেন্ডাবাড়ী ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ইউনিয়ন পরিষদ ভবন, মসজিদ, মাদ্রাসা, ঈদগাহ মাঠ, একটি বিএস কোয়ার্টার, ৩টি মোবাইল টাওয়ার ও এরেন্ডাবাড়ী বাজার। বর্তমানে নদী ভাঙন এলাকা থেকে মাত্র কয়েক গজ দূরেই এসব প্রতিষ্ঠানের অবস্থান থাকায় যে কোন মুহূর্তেই নদী গর্ভে বিলীন হয়ে যেতে পারে। তাছাড়া জিগাবাড়ী বাজারে অবস্থিত ২৫০টি দোকানের ব্যবসায়ীরা ভাঙন আতঙ্কে রয়েছেন।

নিউজনাউ/এবি/২০২০

Express Your Reaction
Like
Love
Haha
Wow
Sad
Angry
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
Loading...