করোনা ও ঢাকায় ঈদ

0 23

শাহরিনা হক:

বছর ঘুরে আবার চলে এসেছে ঈদ। অন্যান্য সব ঈদে আমরা ঢাকার চিরাচরিত রূপের বাইরে অন্যরূপ দেখি। কর্মব্যস্ত ঢাকা নয়, আমরা দেখি মনুষ্যবিহীন ফাঁকা এক ঢাকা। এবারেও তার ব্যতিক্রম হবে না। ঘরবন্দি মানুষ নিজ ঘরে বন্দি থেকেই ঈদ করবে, বাইরে বের হওয়ার উপায় নেই। তাই পুরো ফাঁকা রাস্তার শহরেই ঈদ নামবে এবার।

এবারের কথা অনেকদিক থেকেই ভিন্ন। করোনাভাইরাসের কবলে পড়ে আমরা ইচ্ছা বা অনিচ্ছায় এখন ঘরবন্দি। চাইলেও খুব আনন্দ করে ঈদ উদযাপন করতে পারছি না। ঘরবন্দি হয়েই করতে হবে ঈদ, সেই প্রস্তুতিই আমাদের সবার।

ঈদের আগে পুরো রাজধানীজুড়ে যে আমেজ বিরাজ করে, সেটাও এবার নেই। ঈদ উপলক্ষে রমজানের শেষ ৪ থেকে ৫টি রাত যেভাবে উপচে পড়া ভিড়ের মধ্যেই প্রায় সারারাত ধরে বেচাকেনা করতেন শহরের প্রধান শপিংমলগুলোর দোকানীরা, এবার নেই সেই দৃশ্যও। প্রায় সব শপিংমলই বন্ধ।

শুধু তাই-ই নয়, ঈদের আগে গুলিস্তান এবং মতিঝিলের শাপলা চত্বর ও আশপাশের এলাকায় ফুটপাথে বেশ কিছু জামা-কাপড় ও থান কাপড়ের দোকান বসলেও এ বছর পুরো এলাকাই রয়েছে ফাঁকা। করোনা ভাইরাসের কারণে ফুটপাথের চায়ের দোকান, ফলের দোকান, খাবার হোটেল বন্ধ হয়ে গেছে। সবাই নিরাপদ স্থানে অবস্থান করছেন। সবকিছু মিলিয়ে রাজধানী এখন থমকে আছে।

ঈদুল ফিতরে চাঁদরাতেরও একটি আলাদা আনন্দ রয়েছে। চাঁদরাতকে ঘিরে আমাদের অনেক আয়োজনও থাকে। সেই আয়োজনও এবার বন্ধ। ঈদের আগে বাড়িফেরার যে চিত্র প্রতিবার আমরা দেখি, সেটাও এবার অন্যরকম। ঢাকার বাইরে যাওয়ার যে নিষেধাজ্ঞা, সেটা উপেক্ষা করে অনেকে বাড়ি ফেরার চেষ্টা করছেন ঠিকই, কিন্তু ঈদের খুশি অনেকটা ম্লান জেনেই যাচ্ছেন তারা করোনার ঝুঁকি নিয়েই।

তাই অনেকেই ঢাকা ছাড়ছেন না এবার। বাধ্য হয়েই আপনজন ছেড়ে ঈদ করতে হচ্ছে এই নির্জীব শহরে। ঈদের দিনটাও কাটবে ঘরবন্দি হয়ে। সবার সঙ্গে আনন্দ ভাগ করে নেওয়ার যে মহিমা, সেটাও এবার হচ্ছে না।

এই ঢাকাতেই করোনাঝুঁকি সবচেয়ে বেশি থাকায় মানুষ বিনাকারণে বাইরে বের হওয়া, সামাজিক যোগাযোগ থেকে বিরত থাকছে। সারাবছরের অপেক্ষা, একমাসের সিয়াম সাধনার পর এই কাঙ্ক্ষিত ঈদের দিনটিও মলিন কেটে যাবে রাজধানীবাসীর। লকডাউন আর সাধারণ ছুটির ভিড়ে চাপা পড়ছে রাজধানীবাসীর ঈদ আনন্দ।

নিউজনাউ/এসএইচ/২০২০

Express Your Reaction
Like
Love
Haha
Wow
Sad
Angry
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
Loading...