alo
ঢাকা, মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ৬, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রামে একদিনে ডেঙ্গু আক্রান্ত আরও ৫৫ জন

প্রকাশিত: ০৮ অক্টোবর, ২০২২, ০৯:০২ পিএম

চট্টগ্রামে একদিনে ডেঙ্গু আক্রান্ত আরও ৫৫ জন
alo

চট্টগ্রাম ব্যুরোঃ চট্টগ্রাম জেলায় শনিবার সকাল পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় ৫৫ ডেঙ্গু রোগী শনাক্তের কথা জানিয়েছে সিভিল সার্জন কার্যালয়।

এর আগে বৃহস্পতিবারের প্রতিবেদনে চিহ্নিত হয়েছিল ৫৮ জন, যা চলতি বছরে একদিনে সর্বোচ্চ সংখ্যা।

থেমে থেমে বৃষ্টির কারণে এডিস মশার বংশবৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় সংক্রমণ হারে এ ঊর্ধ্বগতি জানিয়ে সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ ইলিয়াছ চৌধুরী বলেন, “সাধারণত জুন থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ডেঙ্গুর প্রকোপ দেখা দেয়। অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহ থেকে কমতে শুরু করে। এবার উল্টো বাড়ছে।

 

“আজ শনাক্তের সংখ্যা ৫৫, যা এলার্মিং। …আমরা সিটি করপোরেশনকে জানিয়েছি। তারাও মশা নিধনে বিভিন্ন ব্যবস্থা নিয়েছে, কিন্তু সুফল পাচ্ছি না।”

ডেঙ্গু আক্রান্তদের মধ্যে বেশিরভাগ নগরীর বাসিন্দা জানিয়ে ডা. ইলিয়াছ বলেন, “উপজেলাগুলোর মধ্যে সাতকানিয়া, আনোয়ারা ও সীতাকুণ্ডে ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা একটু বেশি ছিল; সেটা কমতে শুরু করেছে। কিন্তু নগরীতে এখনও বাড়ছে।”

এডিস মশার কামড় থেকে রক্ষা পেতে বাসাবাড়ির আশপাশের ঝোপঝাড় পরিষ্কার করার পাশাপাশি স্বচ্ছ পানি যাতে জমে না থাকে, সে ব্যবস্থা নিতে আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, চলতি বছর জেলায় এখন পর্যন্ত ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ১১ জন মারা গেছেন। তবে ৬ অক্টোবরের প্রতিবেদনে সেদিন পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ৬ জন বলে জানানো হয়। এরপর ৭ অক্টোবর আরও একজনের মৃত্যুর খবর দেওয়া হয়।

 

এ বিষয়ে সিভিল সার্জন মোহাম্মদ ইলিয়াছ চৌধুরী বলেন, “চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে ১৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ভর্তি ও মৃত্যুর সংখ্যা আমাদের কাছে ছিল না।

“আমরা দুয়েকদিন আগে এই তথ্য পেয়েছি। সব তথ্য সমন্বয় করে দেখা গেছে জানুয়ারি থেকে এখন পর্যন্ত ডেঙ্গুতে জেলায় মোট ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে।”

শনিবার পর্যন্ত জেলায় ১০৮৩ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়েছে। এখনও ৫২ জন বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

বর্ষা মৌসুমের শেষে অগাস্টের মাঝামাঝি থেকে বৃষ্টি শুরু হলে অগাস্টের শেষ সপ্তাহ থেকে চট্টগ্রামে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা বাড়তে থাকে। সেপ্টেম্বরে তা আরও বেড়ে যায়। গত মাসের তৃতীয় সপ্তাহ থেকে প্রতিদিন গড়ে প্রায় ২০ জন করে নতুন রোগী শনাক্ত হয়। 

নিউজনাউ/একে/২০২২

 

X