চাকরিচ্যুত হলেন সেই পুলিশ হেলাল

চট্টগ্রাম ব্যুরো: চট্টগ্রাম নগরের আগ্রাবাদ এলাকায় কিশোরের ‘আত্মহত্যা’র ঘটনায় বরখাস্ত হওয়া পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) হেলাল খানকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে।

বিভাগীয় মামলায় দোষী প্রমাণিত হওয়ায় সিএমপির ডবলমুরিং থানার এই পুলিশ সদস্যকে চারকরিচ্যুত কর হলো।
তদন্ত কমিটির প্রধান নগর গোয়েন্দা পুলিশের উপ-কমিশনার (পশ্চিম-দক্ষিণ) মোহাম্মদ মনজুর মোর্শেদের তদন্ত প্রতিবেদনে অভিযুক্তসহ মোট ৩২ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়।

এরপর বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা হয়। সেখানে অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় তাকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে।
প্রাথমিক তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, অভিযুক্ত এসআই হেলাল কাউকে কিছু অবহিত না করে, থানায় জিডি বইতে কিছু না লিখে সাদা পোশাকে ঘটনাস্থলে যান। সাথে অন্য কোন পুলিশ সদস্যদের নেন নি। সিনিয়র অফিসারদের মৌখিকভাবেও কিছু জানাননি।

এভাবে সাদা পোশাকে অভিযানে যাবার নিয়ম নেই। এরপর সেখানে গিয়ে এসআই হেলাল সৃষ্ট পরিস্থিতি হ্যান্ডলের পরিবর্তে মারামারি শুরু করে দেন। এইগুলা হচ্ছে তার দোষ। একারণে পুলিশের কোড অব কন্ডাক্ট ভঙ্গ করায় তাকে সাময়িক বরখাস্ত সহ বিভাগীয় শাস্তি মূলক ব্যবস্থার জন্য আমরা সুপারিশ করেছি।

প্রসঙ্গত, গত ১৬ জুলাই সন্ধা ৭ টায় নগরীর ডবলমুরিং থানাধীন আগ্রাবাদের বাদামতলি মসজিদ এলাকায় ডবলমুরিং থানার এসআই হেলাল খানের হাতে নিজ মা বোনের লাঞ্চিত হওয়ার ঘটনায় অপমানিতবোধ করে রাগে ক্ষোভে আত্মহত্যা করেছেন দশম শ্রেণি পড়ুয়া ১৬ বছরের তরুণ সাদমান ইসলাম মারুফ।

নিউজনাউ/পিপিএন/২০২০

Express Your Reaction
Like
Love
Haha
Wow
Sad
Angry
Loading...