দালাল ছাড়াই সিঙ্গাপুরে চাকরির সুযোগ

নিউজনাউ ডেস্ক: দালাল ছাড়া বিদেশে গিয়ে কাজ পাওয়া প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য প্রায় অসম্ভব। দালালের চাহিদা পূরণে ঋণের বোঝায় দিশেহারা হয়ে পড়ে নিম্নবিত্ত এসব মানুষ। এবার তাদের সেই ঝামেলা থেকে মুক্তি দিতে পাশে দাঁড়াচ্ছে সিঙ্গাপুর ভিত্তিক স্টার্ট আপ সামা (Sama) অ্যাপ। এরইমধ্যে বাংলাদেশ সরকারের নিবন্ধন পাওয়ার জন্য জন্য আবেদন করছে প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তারা।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, বিশ্বের অন্যতম শক্তিশালী অর্থনীতির মালিক মাত্র ৭২৫ বর্গ কিলোমিটার আয়তনের দেশ সিঙ্গাপুর। প্রায় ৫৫ লাখ জনসংখ্যার দেশটিতে প্রবাসী শ্রমিক কাজ করেন সাড়ে তিন লাখেরও বেশি। যাদের বেশির ভাগই নির্মাণখাত ও বন্দরে জাহাজে পণ্য-সংক্রান্ত কাজ করে থাকে। এর মধ্যে অধিকাংশই আবার বাংলাদেশ এবং ভারতের নাগরিক। তারা সিঙ্গাপুরে পা রাখার আগেই পড়েন ঋণের কবলে। এ ঋণ থেকে মুক্তি পেতে কয়েক মাস বা কখনো কখনো এক বা একাধিক বছর লেগে যায়। ঋণের ফাঁদে যেন পড়তে না হয়, সে জন্যই তাদের পাশে দাঁড়াতে চায় সামা।

সিঙ্গাপুরের আইন অনুযায়ী, কোনো কর্মীর কাছ থেকে কর্মসংস্থান এজেন্টরা সর্বোচ্চ দুই মাসের বেতন নিতে পারবেন। কিন্তু অন্য দেশে বিষয়টি নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না সিঙ্গাপুর। এ সুযোগে অন্য দেশের এজেন্টরা তিন বা চার মাস, কিংবা কখনো কখনো তারও বেশি বেতন নিয়ে নেন। এ সমস্যা থেকে শ্রমিকদের মুক্তি দিতে গত এপ্রিলে যাত্রা শুরু করে স্টার্টআপটি। এখান থেকে নিজেদের পছন্দমতো চাকরি খুঁজে নিতে পারেন কর্মীরা। এ জন্য সর্বোচ্চ দুই মাসের বেতন দিতে হয় তাঁদের।

চাকরিপ্রত্যাশীরা কোম্পানিটির হোয়াটসঅ্যাপে যোগাযোগ করতে পারেন। সেখানেই জমা দিতে পারেন সব কাগজপত্র। অ্যাপে এখন পর্যন্ত প্রায় দেড় হাজার মানুষ নিবন্ধন করেছেন। শ্রমিকেরা তাঁদের বেতন রাখতে পারেন ডিজিটাল ওয়ালেটে। এর মাধ্যমে দেশে সরাসরি অর্থও পাঠাতে পারেন তারা।

সামা স্টার্টআপের সহপ্রতিষ্ঠাতা নেমানজা গ্রুজিক এবং কীর্তন প্যাটেল জানিয়েছেন, তাঁরা কোম্পানিগুলো থেকে ‘ফি’ নেন। যেখানে শ্রমিকেরা কাজ করছেন, তাদের বুঝিয়ে এ বিষয়ে রাজি করান। কিন্তু অন্য এজেন্টরা শ্রমিকদের থেকে ‘ফি’ নেয়। এতে শ্রমিকদের ওপর সরাসরি চাপ পড়ে।

বাংলাদেশ ও ভারতে আসার বিষয়ে নেমানজা গ্রুজিক বলেন, ‘আমরা বাংলাদেশ ও ভারতে লাইসেন্সের জন্য আবেদন করেছি। বিদেশি এজেন্টদের প্রতি শ্রমিকদের নির্ভরতা কমাতে আমরা দেশ দুটিতে কাজ করতে যাচ্ছি। এ জন্য নিবন্ধনের আবেদন করেছি।’

Express Your Reaction
Like
Love
Haha
Wow
Sad
Angry
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
Loading...