alo
ঢাকা, সোমবার, নভেম্বর ২৮, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ক্রিমিয়া সেতুতে বিস্ফোরণ, ঘটনা তদন্তে কমিশন গঠনের নির্দেশ পুতিনের

প্রকাশিত: ০৮ অক্টোবর, ২০২২, ০৬:১০ পিএম

ক্রিমিয়া সেতুতে বিস্ফোরণ, ঘটনা তদন্তে কমিশন গঠনের নির্দেশ পুতিনের
alo

 

নিউজনাউ ডেস্ক: ক্রিমিয়ার সেতুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনায় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। শনিবার ভোরে বিস্ফোরণের ঘটনা পুতিনকে জরুরিভাবে জানানোর পরই এ নির্দেশ দিলেন তিনি।

পুতিনের ঘনিষ্ঠ ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ জানান, ঘটনার তদন্তের জন্য একটি সরকারি কমিশন গঠনের নির্দেশ দিয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট। এছাড়া  রাশিয়ার নিউজ এজেন্সি ইন্টারফেক্সকে পেসকভ বলেন, খতিয়ে দেখতে একটি সরকারি কমিশন গঠন করতে বলছেন তিনি। ওই কমিশনে থাকবেন ক্রিমিয়ার প্রধান, ন্যাশনাল গার্ড, ফেডারেল সিকিউরি সার্ভিস এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিরা।

তিনি আরও জানান, বিস্ফোরণের পরপরই পরিবহনমন্ত্রী সাভেলিভ এবং জরুরি পরিস্থিতি মন্ত্রী আলেক্সান্ডার কুরেনকভ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

ক্রিমিয়া উপদ্বীপের সাথে রাশিয়াকে সংযুক্তকারী ইউরোপের বৃহত্তম রেল ও সড়ক সেতুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণের পর অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। বিস্ফোরণের পর তেল ট্যাঙ্কারবাহী রেলে আগুন ধরে যায় এবং সেতুর একাংশ ধসে যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। রাশিয়া সেতু নাশকতার জন্য ইউক্রেনকে দায়ী করলেও কিয়েভ সরাসরি কোনও দায় স্বীকার করেনি।

শনিবার ভোরে ক্রিমিয়া উপদ্বীপের সাথে রাশিয়াকে সংযুক্তকারী ইউরোপের বৃহত্তম রেল ও সড়ক সেতুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণের পর অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। বিস্ফোরণের পর তেল ট্যাঙ্কারবাহী রেলে আগুন ধরে যায় এবং সেতুর একাংশ ধসে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। রাশিয়া সেতু নাশকতার জন্য ইউক্রেনকে দায়ী করলেও কিয়েভ সরাসরি কোনও দায় স্বীকার করেনি।

২০১৪ সালে সামরিক অভিযান চালিয়ে ইউক্রেনের কাছ থেকে ক্রিমিয়া দ্বীপের দখল নেয় রাশিয়া। পরে এই দ্বীপের সাথে রাশিয়ার সড়ক ও রেল যোগাযোগ ব্যবস্থা স্থাপনের জন্য দীর্ঘ ১৯ কিলোমিটার সেতুটি নির্মাণ করা হয়। ক্রিমিয়া দ্বীপ দখলে নেওয়ার চার বছর পর সেতুটিকে রাশিয়ার পরিবহন নেটওয়ার্কের সাথে যুক্ত করে প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন মহা ধুমধাম করে সেটির উদ্বোধন করেছিলেন।

নিউজনাউ/এসএইচ/২০২২

X