হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের ‘ধন্যবাদ’ পেল হেফাজত

চট্টগ্রাম ব্যুরো: বাংলাদেশে সংখ্যালঘু নির্যাতনের প্রতিবাদ জানানোয় হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশকে ‘ধন্যবাদ’ জানিয়েছেন বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ।

শনিবার দুপুরে চট্টগ্রাম নগরের নিউমার্কেট মোড়ে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ আয়োজিত গণঅবস্থান কর্মসূচিতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রানা দাশগুপ্ত বলেন, আজ পর্যন্ত (সংখ্যালঘুদের ওপর হামলার ঘটনায়) রাজনৈতিক দলগুলো কোনো বিবৃতি দিতে পারলো না। আমি ধন্যবাদ জানাই হেফজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমির জনাব নুর হোসাইন কাসেমীকে।

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের এ প্রসিকিউটর জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের মহাসচিবের বিবৃতি উল্লেখ করে বলেন, ‘মানবাধিকারবিরোধী তৎপরতার বিরুদ্ধে সরকারকে শক্ত অবস্থান নিতে হবে। আমরা লক্ষ করছি রাসুলের (সা.) মর্যাদা রক্ষার ঈমানি আন্দোলনকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করে এত সাম্প্রদায়িক গোলোযোগ সৃষ্টির চক্রান্ত করছে।’ আমরা ঠিক এই কথা গুলোয় সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলাম।

রানা দাশগুপ্ত বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমরা আপনার কাছে বলতে চাই, কোনো মন্ত্রী, সরকারের কোনো নেতাকে আমাদের বিশ্বাস করতে কষ্ট হয়। তারা যা বলেন, তারা তা করেন না। আপনি সংখ্যালঘুদের পক্ষে ভূমিকার রাখার জন্য অনেকবার অনেক চেষ্টা করেছেন। উপর থেকে পানি ঢেলেছেন, কিন্তু নিচের দিকে আমরা পানির কোনো সন্ধান পাইনি। মাঝপথে আটকে গেছে। তার কারণ আপনার দলের ভেতর দল আছে।’

নগরের নিউমার্কেট মোড়ে বিক্ষোভ সমাবেশে অংশগ্রহণকারীদের হাতে হাতে বিভিন্ন প্লেকার্ড দেখা যায়। তাতে লিখা ‘ধর্ম যার যার রাষ্ট্র সবার’,।‘৭২ এর সংবিধান ফিরিয়ে দাও’। চোখে মুখে সবার প্রতিবাদী ছাপ। মুখে মুখে চলছে স্লোগানের পর স্লোগান। ‘সাম্প্রদায়িক শক্তির কালো হাত, ভেঙে দাও গুঁড়িয়ে দাও’। এ সময় হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের পক্ষ থেকে জাতীয় সংখ্যালঘু কমিশন গঠন করার দাবি জানানো হয়।

বেলা ১২টার পর গণঅবস্থান শেষ করে একটি বিক্ষোভ মিছিল নগরের বিভিন্ন রাস্তা প্রদক্ষিণ করে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে এসে শেষ হয়।

নিউজনাউ/পিপিএন/এনএইচএস/২০২০

Express Your Reaction
Like
Love
Haha
Wow
Sad
Angry
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
Loading...