alo
ঢাকা, বুধবার, ফেব্রুয়ারী ৮, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ | ২৬ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শীতের রাতে ফুটপাতে প্রসবযন্ত্রণায় নারী, পুলিশের ‘মানবিকতায়’ ফুটফুটে ছেলের জন্ম

প্রকাশিত: ২৪ জানুয়ারী, ২০২৩, ০২:১৪ পিএম

শীতের রাতে ফুটপাতে প্রসবযন্ত্রণায় নারী, পুলিশের ‘মানবিকতায়’ ফুটফুটে ছেলের জন্ম
alo

 

চট্টগ্রাম ব্যুরো: ঘড়ির কাটায় রাত তখন ১০টা। অন্ধকার গলিতে প্রসব বেদনায় কাতরাচ্ছিলেন মানসিক ভারসাম্যহীন এক নারী। অনেকেই অবহেলা করে পাশ কাটিয়ে গেলেও এক পথচারী ফোন করে জানান জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯-এ। তখনই কোতোয়ালী থানা পুলিশের একটি টহল টিম হাজির হয় ঘটনাস্থলে। তৎক্ষনাৎ ডিউটিতে থাকা উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোস্তফা পাশের ‘ইনোভা’ নামে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ছুটে যান। সাথে সাথে নার্সরাও ঘটনাস্থলে পৌঁছান প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম নিয়ে। ফুটপাতেই ছেলেসন্তানের জন্ম দেন ওই নারী।

সোমবার (২৩ জানুয়ারি) নগরের জামালখান মোড়ের ‘বীর চট্টলা’ রেস্টুরেন্টের পাশের গলির ফুটপাতে সন্তান প্রসব করেন ওই নারী। এরপরই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের অ্যাম্বুলেন্সে করে দুই তরুণসহ ওই নারীকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান এসআই মোস্তফা ও তার টহল টিম।

পুলিশ জানায়, সন্তানকে জন্ম দেওয়ার সময় মায়ের প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়। সন্তানেরও ওজন কম। চমেকে তাদের সঙ্গে থাকা দুই তরুণ রক্তের ব্যবস্থা করে দিয়েছিল। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মা ও সন্তানের ওষুধ, অন্যান্য খরচ তারা দেবে।

৯৯৯-এ ফোন করা চট্টগ্রাম ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক কলেজে স্নাতক তৃতীয় বর্ষের ছাত্র প্রান্ত শর্মা বলেন, জামালখান মোড়ে বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা শেষে আন্দরকিল্লায় ফুটপাত দিয়ে হেঁটে বাসায় ফিরছিলেন। তখন ফুটপাতে এক নারীকে চিৎকার করতে শোনেন। একটু কাছে গিয়ে দেখেন যন্ত্রণায় ছটফট করছেন। আশপাশে আরও লোকজন থাকলেও কেউ এগিয়ে আসছেন না। তখন তিনি জাতীয় জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯–এ কল দেন। পার্শ্ববর্তী বেসরকারি হাসপাতালে যোগাযোগ করলে তারা ওই সময় কেউ সাড়া দেয়নি। ইতিমধ্যে ওই নারীর সন্তান প্রসব হয়।

কোতোয়ালি থানার উপপরিদর্শক (এসআই)  মোস্তফা কামাল আবরার নিউজনাউকে বলেন, থানা থেকে বিষয়টি জানানোর সাথে সাথে আমরা ঘটনাস্থলে পৌঁছাই। গিয়ে দেখি সেখানে যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছিলেন ওই নারী। পার্শ্ববর্তী বেসরকারি একটি হাসপাতাল থেকে নার্সদের ডেকে আনা হয়। এর মধ্যে সন্তানটির জন্ম হয়ে যায়। প্রচুর রক্তপাত হওয়ায় ওই নারীকে সন্তানসহ চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রাতে ভর্তি করা হয়।

তিনি আরও বলেন, রাতে দুই ব্যাগ রক্ত জোগাড় করে ওই নারীকে দেওয়া হয়েছে। শিশুটির ওজন কম থাকায় তাকে হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে রাখা হয়েছে। মা ও ছেলে দুজনের ওষুধ খরচসহ সবকিছু দেখভাল করা হচ্ছে।

কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহেদুল কবীর নিউজনাউকে বলেন, আমরা শিশুটির সকল দায়িত্ব নিচ্ছি। আমার এরমধ্যেই চমেক পরিচালকের সাথে কথা হয়েছে। পরবর্তীতে এই শিশু এবং শিশুর মা যাতে ভালো থাকে আমরা সেই ব্যবস্থা নেওয়ার চেষ্টা করছি।

নিউজনাউ/আরএইচআর/পিপিএন/২০২৩

X