পদ্মা সেতুর ৪ হাজার ৫০মিটার দৃশ্যমান

শরীয়তপুর প্রতিনিধি : করোনা ভাইরাস এর আতঙ্কের  মধ্যেও থেমে নেই পদ্মাসেতুর নির্মাণযজ্ঞ। এরই অংশ হিসেবে শনিবার (২৮ মার্চ) পদ্মাসেতুর ২৭তম স্প্যান বসানোর মধ্যদিয়ে ৪ হাজার ৫০মিটার দৃশ্যমান হলো।

 

মূল সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী দেওয়ান আবদুল কাদের স্প্যান বসানোর এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, ২৬তম স্প্যান বসানোর ১০ দিনের মাথায় বসানো হচ্ছে ২৭তম স্প্যানটি।

 

বর্তমানে পদ্মাসেতুর ৩.৯ কিলোমিটার দৃশ্যমান রয়েছে।

শুক্রবার (২৭ মার্চ) সকালে মুন্সীগঞ্জের মাওয়া কনস্ট্রাকশন এরিয়া থেকে ভাসমান ক্রেন ‘তিয়ান-ই’র মাধ্যমে স্প্যানটি জাজিরা প্রান্তে পদ্মা সেতুর পিলারের কাছে নেওয়া হয়েছে।

 

আবহাওয়াসহ সবকিছু অনুকূলে থাকলে শনিবার সকালেই বসবে সেতুর ২৭তম স্প্যানটি। তিনি আরও জানান, পদ্মাসেতুতে বসানোর জন্য স্প্যান প্রস্তুত আছে আরো পাঁচটি। এপ্রিল মাসের ১৫ তারিখের মধ্যে আরও দুইটি স্প্যান বসানোর পরিকল্পনা রয়েছে।

 

মূল সেতু নির্মাণের জন্য কাজ করছে চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি (এমবিইসি)। নদী শাসনের কাজ করছে দেশটির আরেকটি প্রতিষ্ঠান সিনো হাইড্রো কর্পোরেশন।

৬.১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এ বহুমুখী সেতুর মূল আকৃতি হবে দোতলা। কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মিত হচ্ছে সেতুর কাঠামো। ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে পদ্মাসেতুর নির্মাণকাজ শুরু হয়।

সেতু বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী দেওয়ান আঃ কাদের বলেন, ইতোমধ্যে সেতুর প্রায় ৮৭.০৫ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। চলতি বছরের জুলাই মাসের মধ্যে সবক’টি স্পেন বসিয়ে সেতুটি দৃশ্যমান করে তুলবো বলে আশা করছি।

 

প্রসঙ্গত, সাড়ে চার হাজার দেশি শ্রমিকের মধ্যে করোনাভাইরাস আতঙ্কে প্রায় তিন হাজার শ্রমিক ছুটি নিয়েছে।

 

নিউজনাউ/এফএফ/২০২০

Express Your Reaction
Like
Love
Haha
Wow
Sad
Angry
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
Loading...