ডাক্তারদের আরো বেশী তৎপর হওয়ার নির্দেশ পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রীর

বরিশাল প্রতিনিধি:  বরিশালে করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় জেলা প্রশাসন ও বিভাগীয় প্রশাসনের সাথে বিভিন্ন পদক্ষেপের বিষয়ে আলোচনা করেছেন  পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল অব জাহিদ ফারুক শামীম এমপি।

 

বুধবার (২৫ মার্চ) রাতে  পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী পানি উন্নয়ন বোর্ডের ডাক বাংলাতে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় তিনি জাহিদ ফারুক শামীম বলেন, এর আগেও নগর বাসীকে করোনা প্রতিরোধের বিভিন্ন সরঞ্জাম দেয়া হয়েছে। কিন্তু  সরকারী ছুটি ঘোষণার পর যে পরিমাণ লোক বিভাগে প্রবেশ করেছে ঈদেও এত লোক বিভাগে আসেনি। এটি একটি ভয়ের ব্যাপার বলেন তিনি।

 

কারণ এখন করোনা ভাইরাস আরও বেশি বিস্তার লাভ করবে। এখন এ পরিস্থিতির মোকাবেলার জন্য সকলকে আরও কঠোর অবস্থানে যেতে হবে জানিয়ে পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী বলেন, কোন লোকজনকে আজ থেকে রাস্তায় অবস্থান করা বরদাস্ত করা হবে না।

খুব প্রয়োজন ছাড়া কাউকে ঘর থেকে বের হতে নিষেধ করেন তিনি। শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজে করোনা রোগীর জন্য যে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে তা অপর্যাপ্ত হলে নগরীর এ্যাপোলো হসপিটালকে করোনা রোগীদের জন্য চিকিৎসা কেন্দ্র হিসেবে তৈরি করা হয়েছে বলেন  পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী।

 

এখানে ২০০ রোগী চিকিৎসা নিতে পারবে। শুধু নগরীতেই নয় উপজেলা গুলোতেও স্থানীয় ভাবে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হবে। কর্নেল জাহিদ ফারুক শামীম বলেন শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ এর পরিচালকের সাথে ডাক্তারদের রোগীদের চিকিৎসার বিষয়ে আরও বেশী তৎপর হওয়ার বিষয়ে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

 

তিনি বলেন বর্তমানে আমাদের করোনা রোগী সনাক্ত করার জন্য যে পরিমাণ কিট আছে তাতে এক সপ্তাহ চলবে। ইতিমধ্যে ঢাকায় লোক পাঠানো হয়েছে বাড়তি রোগীর চাপ পড়লে যাতে করে কিটের অভাব না হয়।

 

আরও ৭হাজার মাস্ক এর অর্ডার দেয়া হয়েছে। একই সাথে ৪ হাজার হ্যান্ড স্যানিটাইজার আনা হচ্ছে। আগামী ২৭-২৮ তারিখের মধ্যে এই সরঞ্জাম গুলো এসে পৌঁছাবে যা জনসাধারণের মধ্যে বিতরণ করা হবে।

 

 

সর্বশেষ প্রতিমন্ত্রী বলেন ঢাকা থেকে যারা এসেছে তাদের নিজেদের বাড়িতে অবস্থান করার আহ্বান জানান। একই সাথে তাদের তত্ত্বাবধানের পুলিশ প্রশাসনকে সক্রিয় থাকার নির্দেশনা দেন তিনি।

সাংবাদিকদের সাথে আলোচনার পূর্বে অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. শাহাবুদ্দিন খান বিপিএম বার, জেলা প্রশাসক এসএম অজিয়র রহমান, জেলা পুলিশ সুপার মো. সাইফুল ইসলাম, র্যাবের প্রতিনিধি মো. জাহাঙ্গির, শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজের পরিচালক ডাঃ মো. বাকির হোসেন প্রমুখ।

 

নিউজনাউ/টিএন/২০২০

Express Your Reaction
Like
Love
Haha
Wow
Sad
Angry