‘জো বাইডেনের প্রশাসন বাংলাদেশের জন্য নতুন অভিজ্ঞতা’

নিজস্ব প্রতিবেদক: জো বাইডেনের প্রশাসন বাংলাদেশের জন্য নতুন অভিজ্ঞতা হবে। এই প্রশাসন গণতন্ত্র, মানবাধিকার ইস্যুতে বেশি সক্রিয়তা দেখালেও বাংলাদেশ-যুক্তরাষ্ট্র সম্পর্ক আগের মতোই থাকবে বলে মনে করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

অনেক নাটকীয়তা, বাক-বিতণ্ডা, ভোটের রেকর্ড, সব কিছু সঙ্গে নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। চার বছরের জন্য হোয়াইট হাউজের দায়িত্ব পেলো ড্যামোক্রেটরা। রিপাবলিকানরা কোনো ব্যর্থ হলেন, তা নিয়ে এখন চলছে নানা বিশ্লেষণ।

এ পরিবর্তনে বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্কের কোনো পরিবর্তন হবে না বলে মনে করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, ব্যক্তি বিশেষের উপর কোনো দেশের রাষ্ট্রনীতি নির্ভর করে না। এটা একটি দেশের ভ্যালু এবং নীতির উপর নির্ভর করে। তারা দেশের স্বপক্ষের জন্য যেটা করা দরকার সেটাই করে। আমাদের সঙ্গে কারো শত্রুতা নাই। একটা ভালো সম্পর্ক বজায় রেখেই তাদের সঙ্গে কাজ করবো।

আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিশ্লেষকরা বলছেন, বাইডেন প্রশাসন কিছুটা হলেও নতুন অভিজ্ঞতা বয়ে নিয়ে আসবে বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্কের ক্ষেত্রে। রোহিঙ্গা ইস্যুতেও পাশে থাকবে তারা এমন প্রত্যাশা তাদের।
আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিশ্লেষক অধ্যাপক ইমতিয়াজ আহমেদ বলেন, ড্যামোক্রেটরা বা জো বাইডেন ঐতিহাসিকভাবে গণহত্যার বিষয়গুলো বড়ভাবে দেখেছেন। সেই হিসেবে আমাদের আশা থাকবে জো বাইডেন ক্ষমতায় থাকলে স্বাভাবিকভাবে আমরা আশা করবো আরো বড় আকারে যেন মিয়ানমারের উপরে চাপ আনতে পারে।

নিউজনাউ/এফএফ/২০২০

Express Your Reaction
Like
Love
Haha
Wow
Sad
Angry
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
Loading...