আমি আছি, থাকবো; বাকিটা ভাগ্যের হাতে

মির্জা ইয়াহিয়া: ব্যাংকিং সেক্টরে আমার ক্যারিয়ারের ৩০ বছর পূর্ণ হলো আজ। ১৯৯০ সালের ২০ নভেম্বর জয়েন করেছিলাম সিটি ব্যাংকে। টানা তিন দশক এই ব্যাংকেই কাটিয়ে দিলাম। দীর্ঘ সময়ে প্রতিষ্ঠানটির প্রতি অন্যরকম টান তৈরি হয়েছে। সেই ভালোলাগা-ভালোবাসা থেকেই নিজেকে উজাড় করে দিয়ে কাজ করে যাচ্ছি। বিনিময়ে আমার প্রাপ্তিও কম নয়। এভাবে প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তির মধ্যে সুসমন্বয় হওয়ার কারণেই এখন কাজের প্রতি আগ্রহ একই রকম আছে। সার্ভিস দিয়ে যাচ্ছি একই গতিতে। প্রতিষ্ঠানকে নিজের আঙিনার মতোই মনে হয়। যেখানে এসেছিলাম যুবক বয়সে, আজ চলেছি পৌঢ়ত্বের দিকে। দীর্ঘ একটা সময়, এখানে কাটিয়ে দেয়ার বিষয়টিতে কোনো জড়তা নেই, আছে শুধু মনের টান। বিষয়টি নিয়ে এক ধরনের গর্ববোধও করি।

আমার ৫৬ বছরের জীবনের ৩০ বছরই সিটি ব্যাংকে দিনের বেশিরভাগ সময় কাটিয়েছি। এখনো কাটাচ্ছি। এই অফিস যেন আমার দ্বিতীয় এক বাড়ি। এখানেই ৯ জন এমডির সঙ্গে কাজ করেছি। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে অনেক পরিবর্তন এসেছে সিটি ব্যাংকে। যা এই ব্যাংকের সাফল্যের পথ আরো মসৃণ করেছে। এর পেছনে ক্ষুদ্র হলেও হয়তো আমার অবদান আছে। বিষয়টি ভাবতে ভালো লাগে। এই ব্যাংকের সঙ্গে যেন গভীর বন্ধনে যুক্ত হয়ে আছি।
আজ বলতে দ্বিধা নেই, আসলেই সিটি ব্যাংককে মন থেকে ভালোবাসি। তাই আমি আছি, থাকবো। এখান থেকেই কর্মজীবনের ইতি টানবো একদিন- এমন ইচ্ছেই পোষণ করি। বাকিটা ছেড়ে দিয়েছি ভাগ্যের হাতে।

তিন দশকে পিআর-এর কাজে মিডিয়ার যেসব বন্ধু সবসময় পাশে থেকেছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা। অতীত ও বর্তমানের নবীন-প্রবীণ সিটি ব্যাংকের সমস্ত সহকর্মীর জন্য আমার অন্তরের ভালোবাসা।

লেখক: সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ও হেড অব পাবলিক রিলেশন্স অ্যান্ড মিডিয়া, সিটি ব্যাংক।

Express Your Reaction
Like
Love
Haha
Wow
Sad
Angry
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
Loading...