২ অক্টোবর: ইতিহাসের এই দিনে

নিউজনাউ ডেস্ক: সময় গড়ায় তার নিজস্ব নিয়মে, নিজস্ব গতিতে। ধীরে ধীরে তৈরি হয় ইতিহাস, সমৃদ্ধ হয় মানবসভ্যতা। বিভিন্ন ঘটনা-দুর্ঘটনা, মনীষী কিংবা সাধারণের জন্ম-মৃত্যু দিয়ে গড়ে ওঠে ইতিহাস, উন্মোচিত হয় জগতের নতুন নতুন দিগন্ত। বছরের পর বছর পিছনে ফিরে তাকালে ঠিক আজকের এইদিনে এমন অনেক ঘটনা, অনেক আলোচিত সমালোচিত ব্যক্তির জন্ম-মৃত্যু জানতে পারি আমরা। ইতিহাসের দিকে চোখ বুলাতে দেখে নেবো এইদিনটিতে উল্লেখযোগ্য কি কি ঘটেছিল এই বিশ্বব্রক্ষ্মাণ্ডে। আজ শুক্রবার ২ অক্টোবর, ২০২০। জেনে নিই ইতিহাসের এইদিনে বিশিষ্টজনদের জন্ম-মৃত্যু, দিনসহ ঘটে যাওয়া ঘটনা।

যা ঘটেছিল এইদিনে

১১৮৬ – ক্রুসেডের যুদ্ধে মুসলিম সেনাপতি সালাউদ্দীন আইয়ুবি বায়তুল মোকাদ্দাস মুক্ত করতে সক্ষম হন।

১৭১৮ – স্পেনের বিরুদ্ধে লন্ডনে ব্রিটেন, ফ্রান্স, অস্ট্রিয়া ও হল্যান্ড-এই চতুঃশক্তির মৈত্রী জোট হয়।

১৭৮০ – মার্কিন স্বাধীনতা আন্দোলন জন এ্যান্ড্রে কে ফাঁসি দেওয়া হয়।

১৭৯০ – মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রথম আদমশুমারি শুরু হয়।

১৮৬৮ – কলকাতায় জেনারেল পোস্ট অফিস উদ্বোধন হয়।

১৯২২ – চীনে টাইফুনের আঘাতে ৬০ হাজার মানুষের প্রাণহানি ঘটে।

১৯৩৪ – জার্মানির স্বৈরশাসক রূপে এডলফ হিটলারের আত্মপ্রকাশ ঘটে।

১৯৩৫ – মুসোলিনীর নেতৃত্বে ইথিওপিয়া (আবিসিনিয়া ) আক্রমণ ঘটে।

১৯৪১ – জার্মানীর নাৎসী বাহিনীর নেতা হিটলার রাশিয়ার বিরুদ্ধে দ্বিতীয় হামলার নির্দেশ জারী করে।

১৯৫৫ – সোভিয়েত ইউনিয়ন প্রথম পারমাণবিক পরীক্ষা চালায়।

১৯৫৮ – ঘানা ফ্রান্সের কাছ থেকে স্বাধীনতা অর্জন করে।

১৯৭২ – বোম্বেতে ভারতের প্রথম টেলিভিশন কেন্দ্র চালু হয়।

১৯৭৭ – ঢাকা সেনানিবাস ও বিমান বন্দরে সেনা বিদ্রোহ ঘটে এতে বিমান বাহিনীর ১১ জন অফিসার নিহত হন।

১৯৭৯ – ঢাকায় রিয়াদ সরাসরি ট্রাংক ডায়ালিং চালু করে।

১৯৮৩ – বাংলাদেশ গ্রামীণ ব্যাংকের আত্বপ্রকাশ ঘটে।

১৯৯০ – ইরাকি ট্যাঙ্ক ও পদাতিক বাহিনী কুয়েত দখল করে।

১৯৯৫ – বাংলাদেশ সরকার সাপটা অনুমোদন করে।

১৯৯৬ – মাদার তেরেসা আমেরিকার সম্মানিক নাগরিকত্ব লাভ করেন।

১৯৯৬ – প্রশান্ত মহাসাগরে পেরুর যাত্রবিাহী বিমান বিধ্বস্ত হয়। এতে ক্রসহ ৭০ জন নিহত হয়।

২০০২ – তেহরানে ইরান ও কুয়েতের মধ্রে প্রতিরক্ষা গোয়েন্দা চুক্তি স্বাক্ষর হয়।

এইদিনে জন্মেছিলেন যারা

১৫৩৮ – চার্লস বরমেও, তিনি ছিলেন ইতালিয়ান অঙ্কবাচক ও সেন্ট।

১৬৯৬ – অটোমান সম্রাট প্রথম মাহমুদ জন্মগ্রহণ করেন।

১৮৪৭ – পল ভন হিন্ডেনবার্গ, পোলিশ বংশোদ্ভূত জার্মান ফিল্ড মার্শাল, রাজনীতিবিদ ও প্রেসিডেন্ট।

১৮৮৯ – খ্যাতনামা অভিনেতা, নাট্য পরিচালক ও নাট্যাচার্য শিশিরকুমার ভাদুড়ী জন্মগ্রহণ করেন।

১৮৫২ – উইলিয়াম রামসায়, তিনি ছিলেন নোবেল পুরস্কার বিজয়ী স্কটিশ ইংরেজ রসায়নবিদ।

১৮৬৯ – মহাত্মা গান্ধী, তিনি ছিলেন ভারতীয় স্বাধীনতা আন্দোলনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ নেতা।

১৮৭১ – করডেল হুল, তিনি ছিলেন নোবেল পুরস্কার বিজয়ী আমেরিকান আইনজীবী, রাজনীতিবিদ ও রাজ্য ৪৭তম মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সচিব।

১৮৯৬ – লিয়াকত আলি খান, তিনি ছিলেন পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও প্রখ্যাত মুসলিম লীগ নেতা।

১৯০৪ – গ্রাহাম গ্রীন, তিনি ছিলেন খ্যাতিমান ইংরেজ ঔপন্যাসিক, গল্পকার ও সমালোচক।

১৯০৭ – আলেক্সান্ডার রবার্টাস টড, তিনি ছিলেন নোবেল পুরস্কার বিজয়ী ব্যারন টড ও স্কটিশ প্রাণরসায়নী।

১৯১৭ – খৃস্টান ডি ডুভে, তিনি ছিলেন নোবেল পুরস্কার বিজয়ী ইংরেজ বংশোদ্ভূত বেলজিয়ান সাইটোলগিস্ট ও প্রাণরসায়নবিদ।

১৯৩৩ – স্যার জন বার্ট্রান্ড গার্ডন, তিনি নোবেল পুরস্কার বিজয়ী ইংরেজ জীববিজ্ঞানী।

১৯৫০ – পার্সিস খামবাট্টা, তিনি একজন ভারতীয় মডেল ও অভিনেত্রী।

১৯৬৪ – ফারুক মাহফুজ আনাম, তিনি একজন বাংলাদেশী রক সঙ্গীত শিল্পী, যিনি জেমস নামে পরিচিত।

১৯৭৮ – আয়ুমি হামাসাকি, তিনি জাপানি কন্ঠশিল্পী, গীতিকার, প্রযোজক ও অভিনেত্রী।

১৯৮৪ – মারিওন বারতোলি, তিনি ফরাসি টেনিস খেলোয়াড়।

মৃত্যু হয়েছিল যাদের

০৫৩৪ – আটালারিক, তিনি ছিলেন ইতালিয়ান রাজা।

১৮৫০ – সারাহ বিফফেন, তিনি ছিলেন ইংরেজ চিত্রশিল্পী।

১৮৫৩ – ফ্রাঁসোয়া জিয়ান ডোমিনিক আরাগো, ফরাসি গণিতবিদ, পদার্থবিদ, জ্যোতির্বিদ, রাজনীতিবিদ ও ২৫ তম প্রধানমন্ত্রী।

১৯০৬- ভারতের প্রখ্যাত চিত্রশিল্পী রাজা রবি বর্মা মুত্যুবরণ করেন।

১৯১৭ – অক্ষয়চন্দ্র সরকার, তিনি ছিলেন বাংলা সাহিত্যের কবি ও সাহিত্য সমালোচক।

১৯২৭ – সভান্টে অগস্ট আরেনিউস, তিনি ছিলেন নোবেল পুরস্কার বিজয়ী সুইডিশ পদার্থবিদ ও রসায়নবিদ।

১৯৪৭ – পি. ডি. অউস্পেনস্কাই, রাশিয়ান বংশোদ্ভূত ইংরেজ গণিতবিদ ও দার্শনিক।

১৯৮১ – হ্যারি গোল্ডেন, তিনি ছিলেন আমেরিকান সাংবাদিক ও লেখক।

১৯৮৭ – পিটার মিডাওয়ার, তিনি ছিলেন নোবেল পুরস্কার বিজয়ী ব্রাজিলিয়ান বংশোদ্ভূত ইংরেজ জীববিজ্ঞানী ও প্রাণিবিজ্ঞানী।

১৯৯৬ সালে এই দিনে বুলগেরিয়ার কমিউনিস্ট যুগের পরবর্তী প্রথম প্রধানমন্ত্রী আন্দ্রেই লুখানভ নিহত হন।

২০০৭ – ক্রিস্টোফার ডেররিক, তিনি ছিলেন ইংরেজ লেখক ও সমালোচক।

২০১৩ – কারে অরনুং, তিনি ছিলেন নরওয়েজিয়ান পিয়ানোবাদক ও শিক্ষক।

Express Your Reaction
Like
Love
Haha
Wow
Sad
Angry
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
Loading...