শেবাচিমে করোনা ওয়ার্ডে ৬ লাখ টাকার মালামাল চুরি!

বরিশাল ব্যুরো:
বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজের মর্ডানাইজেশন ভবন (করোনা ওয়ার্ড) থেকে ৫০টি বাথরুমের আনুমানিক ৬ লাখ টাকার স্যানেটারী মালামাল চুরি হয়ে গেছে।

এঘটনায় মেডিকেল কর্তৃপক্ষ ৭দিনের মধ্যে তদন্তপূর্বক রিপোর্ট প্রদানের জন্য তিন সদস্যের একটি তদন্তের কমিটি গঠন করা হয়েছে।

এমনকি করোনা ওয়ার্ড থেকে এই সময়ে এত টাকার মালামাল চুরি যাওয়া বিষয় নিয়ে শনিবার (১১ জুলাই) দুপুরে করোনা সচিব একে আলি আজিমের উপস্থিতে জেলা প্রশাসক এস এম অজিয়র রহমানের সভাপতিত্বে জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে বেশ জোড়ে সোরে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়।

এব্যাপারে খোঁজ নিতে করোনা ওয়ার্ডের দায়ীত্বরত ওয়ার্ড মাস্টার আবুল কালামকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, ‘করোনার এই সময়ে ঠিকমত আমরা, চিকিৎসকসহ সেবিকারা কেউ অতিরিক্ত ঘোড়াফেরা করিনা। সেখানে চোরের কাছে করোনা বলতে কিছুই নেই তাই এই সুযোগে হয়ত চুরির ঘটনা ঘটতে পারে।’

কালাম আরো বলেন, গত বৃহস্পতিবার বিভিন্ন ওয়ার্ডে পানির সমস্যা সৃষ্টি হলে তখনই বিষয়টি খোঁজ নিতে গেলে দেখা যায় কলের এসকল মালামাল চুরি হয়ে গেছে।

সূত্র মতে, বর্তমান করোনা ওয়ার্ড হিসাবে ব্যবহৃত ভবনটি মর্ডানাইজেশন ভবন হিসাবে বরিশাল গণপূর্ত অধিদপ্তর নির্মাণ করেছে। ইতিমধ্যে উক্ত ভবনের নিচতলা থেকে তৃতীয় তলা পর্যন্ত করোনা রোগীদের জন্য ব্যবহার করা হচ্ছে। ভবনটি শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালককে মৌখিকভাবে ব্যবহার করার জন্য দেওয়া হয়।

এব্যাপারে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পরিচালক ডা. বাকির হোসেন নিউজনাউকে বলেন, চুরি হওয়ার ঘটনা নিয়ে সচিবের উপস্থিতিতে জেলা প্রশাসকের দপ্তরের সভায় আলোচনা হয়েছে। এ ব্যাপারে ৩ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত কমিটি প্রতিবেদন মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নিউজনাউ/এবি/২০২০

 

Express Your Reaction
Like
Love
Haha
Wow
Sad
Angry
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
Loading...