চট্টগ্রামে ছিনতাইয়ের পর খুন, গ্রেপ্তার ৫

চট্টগ্রাম ব্যুরো: চট্টগ্রাম নগরের আগ্রাবাদে ছিনতাইকারীদের ছুরির আঘাতে পায়ের রগ কেটে যাওয়ায় অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে মারা যান আইয়ুব আলী (৫৫)। সিসিটিভির ফুটেজ দেখে প্রাইভেট কার চালক আইয়ুব হত্যার সাথে জড়িত ৫ জনকে গ্রেপ্তার করেছে ডবলমুরিং থানা পুলিশ।

গত ৪ সেপ্টেম্বর রাতে নগরের আগ্রাবাদ বাদামতলী মোড়ে আইয়ুবের রিক্সারোধ করে ছিনতাই করছিল এই চক্রের পেশদার ছিনতাইকারীরা। ঘটনার তিনদিন পর সোমবার দিবাগত রাতে নগরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে হত্যার সাথে জড়িত ৫ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ছিনতাই হওয়া আইয়ুবের কালো রঙ এর ব্যাগটি উদ্ধার করার কথাও জানিয়েছে ডবলমুরিং থানা পুলিশ।

এই হত্যা রহস্য উন্মোচনে মঙ্গলবার দুপুর ২ টায় ডবলমুরিং থানায় সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

পুলিশ জানায়, এই ঘটনায় গ্রেপ্তার ৫ জনই পেশাদার ছিনতাইকারী। তারা রাতে নগরের বিভিন্ন সড়কে পথচারীদের পথরোধ করে ছিনতাই করে থাকে। গ্রেপ্তার আসামীরা হলেন- সোহেল (২৫), রাব্বী (২২), আল আমিন (২২), শাকিক ওরফে ছোট বাবু(২২), কামাল হোসেন রনি(২০)।

সংবাদ সম্মেলনে ডবলমুরিং থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোহাম্মদ জহির হোসেন জানান, আসামীরা দীর্ঘদিন ধরে পিক আপ ভ্যান ভাড়া করে রাতে শহরের বিভিন্ন নির্জন সড়কে পথচারীদের ছুরি দেখিয়ে কিংবা ছুরিকাহত করে ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটিয়ে আসছিল। গত ৪ সেপ্টেম্বর রাতেও একইভাবে আগ্রাবাদ বাদামতলী মোড়ে তারা রিক্সা যোগে বারেক বিল্ডিংগামী আইয়ুব আলীর পথ রোধ করে তাকে ছুরিকাহত করে তার কাছে থাকা একটি কালো ব্যাগ ছিনতাই করে। পরে আহত আইয়ুব আলীকে মা ও শিশু হাসপাতালে নেওয়া হলে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরও জানান, এই ঘটনায় ৬ জন জড়িত ছিল। যাদের ৫ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। অপর পালাতক আসামীকে গ্রেপ্তারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, ঢাকার মোহাম্মদপুর এলাকার বাসিন্দা আইয়ুব আলী
ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে ভাগ্নের বাসায় বেড়াতে আসেন। পেশায় প্রাইভেটকার চালক আইয়ুব ৪ সেপ্টেম্বর রাতে ছিনতাইকারীদের ছুরিকাঘাতে খুন হন। তার গ্রামের বাড়ি ফরিদপুর জেলার নাগরকান্দা এলাকায়।

নিউজনাউ/পিপিএন/২০২০

Express Your Reaction
Like
Love
Haha
Wow
Sad
Angry
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
Loading...