Banner Before Header

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে খোলা চি‌ঠি

 

‌সে‌লিম শামসুল হুদা চৌধুরী : ১৯৬৮ সাল থে‌কে প্রগ‌তিশীল ছাত্র রাজনী‌তির সা‌থে জ‌ড়িত হ‌য়ে অদ্যাব‌দি দে‌শের সাংস্কৃ‌তিক আন্দোল‌নের পু‌রোভা‌গে নেতৃত্ব দি‌য়ে আস‌ছি। ৬০ বছর বয়‌সে সংবাদপত্র পেশা থে‌কে অবসর গ্রহ‌ণের পর আমা‌দের পৈ‌ত্রিকবাড়ী শত বছ‌রের পু‌রনো ঐত্যহ্যবাহী স্থাপনা ফেনীর ফের‌দৌস ম‌ঞ্জি‌লে যাপন করার আশা ক‌রছি।
‌বর্তমা‌নে বিদেশী ব্যা‌ংকের টাকায় উন্নয়‌নের না‌মে ফেনী শহ‌রে ড্রেন উৎসব চল‌ছে। যার ভা‌গের টাকা বা‌টোয়ারার জন্য আমা‌দের ছোট বড় সব নেতারা অতি উৎসাহী হ‌য়ে পৌরবাসীদের ব্যা‌ক্তিগত সম্প‌ত্তি ভাংচুর, দখ‌লের হো‌লি খেল‌ছেন। দে‌শের স‌র্বোচ্চ আদাল‌তের নি‌র্দেশনা থাকার পরও প‌রিক‌ল্পিতভা‌বে গভীর রা‌তের অন্ধকা‌রে ফেনীর রাজনীতি‌তে উত্থিত নব্য শিশু! হাজারী‌দের নি‌র্দেশনায় আজ সাপ্তা‌হিক ব‌ন্ধের দি‌নে আমাদের একমাত্র সম্বল বা‌ড়ি‌টির নতুন দেয়াল ও ফটক ভে‌ঙ্গে বা‌ড়ির ভেতর দি‌য়ে ড্রেন নির্মাণ কর‌ছেন। দে‌শের আইনের শাস‌নের প্র‌তি বৃদ্ধাঙ্গু‌লি প্রদর্শণ ক‌রে তারা আমা‌দের জীব‌নের প্র্তিও হুম‌কি দি‌চ্ছে। স্বাধীনতার পর থে‌কে এ জনপদ নি‌য়ে অনেক আলোচনা সমা‌লোচনা হ‌য়ে‌ছে। বর্তমা‌নের দুনী‌তি / স্বৈরাচারি কর্মকাণ্ড সব‌কিছু‌কে ছা‌ড়ি‌য়ে যা‌চ্ছে। আত্মসম্মান রক্ষা‌র্থে এ শহর থে‌কে সাংস্কৃ‌তিক, শি‌ক্ষিত ঐতিহ্যবাহী প‌রিবারগু‌লো চ‌লে যা‌চ্ছে এদের অত্যাচা‌রে।


এই মূহু‌র্তে একমাত্র মাননীয় প্রধানমন্ত্রীই পা‌রেন এসব মূ‌র্খ অর্বা‌চিন‌দের হাত থে‌কে ফেনীবাসী‌কে বাঁচা‌তে। প্রশাসন এখা‌নে অন্ধ, তারা চো‌খে দে‌খেনা, কা‌নে শো‌নেনা। উন্নয়‌নের এই স্বর্নালী সম‌য়ে আইনের শাসন অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনার প্র‌তি সম্পূর্ন আস্থা নি‌য়ে এ আবেদন জানা‌চ্ছি।
‌বিনীত
‌সে‌লিম শামসুল হুদা চৌধুরী
প্রাক্তন সংবাদ ও ডেই‌লি স্টার কর্মী
সাংগঠ‌নিক সম্পাদক
স‌ম্মি‌লিত সাংস্কৃ‌তিক জোট, কে‌ন্দ্রিয় প‌রিষদ

Leave A Reply

Your email address will not be published.