Banner Before Header

রাশিয়ায় বিশ্বকাপের ব্যতিক্রমী উদ্বোধন

৮৮ বছরের ইতিহাসে এবার একুশতম বিশ্বকাপ ফুটবল আসর। ব্যতিক্রমী উদ্বোধনি অনুষ্ঠান। ভিন্ন মাত্রা যোগ করেছে রাশিয়া। বিশ্বকে দেখিয়েছে গতানুগতিকতার বাইরে গিয়ে কিভাবে মনোজ্ঞ অনুষ্ঠান করা যায়।
রাশিয়া এবং সৌদিআরবের ম্যাচের আগে ১৫ মিনিটের উদ্বোধনি অনুষ্ঠানে সুর আর সঙ্গীতের সঙ্গে বাদ্যযন্ত্রের কাজ তুলে ধরেছে বিশ্ববাসীর কাছে। সঙ্গীতে ঝড় তুলেছেন ব্রিটেনের বিশ্ব বিখ্যাত পপস্টার রব্বি উইলিয়ামস। এই শিল্পীর কণ্ঠের জাদু ৮১ হাজার দর্শক ক্ষমতার লুঝনিকি স্টেডিয়াম মাতোয়ারা করে দেয়। সঙ্গীতে মোহাবিষ্ট দর্শক চেয়ার ছেড়ে দাঁড়িয়ে যায়। এরপরই আসেন রাশিয়ার বিখ্যাত উচ্চাঙ্গ শিল্পী আইডা গারফলিনা।

২০১০ সালে দক্ষিণ আফ্রিকা বিশ্বকাপ ফুটবল জয়ী স্পেনের গোলকিপার ইকার ক্যাসিয়াস এবং রাশিয়ান সুপার মডেল নাতালিয়া রুপালী রংয়ের একটি বক্স হাতে মাঠে প্রবেশ করেন। বক্স খুলে সোনার বিশ্বকাপটি যখন লুঝনিকির মাঠে তুলে ধরা হল দর্শক তখন গগনবিদারী আওয়াজ করে। সরাসরি বিশ্বকাপ দেখার স্মরণীয় মুহূর্তটি দেখে উল্লাস করে। মোবাইল ফোনের ক্যামেরাগুলো জ্বলে উঠে হাতে হাতে। রাশিয়ান পিয়ানিস্ট দানিল ট্রিফনভ এবং ভায়োলিন বাদক ইউরি বাসমেট যন্ত্র সঙ্গীতে ডুবিয়ে দেন দর্শকদের।

তার গানের সঙ্গে সহ-শিল্পীরাও নৃত্য পরিবেশন করে। প্রায় হাজার খানেক শিল্পী উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করে। অংশগ্রহণকারী দেশের ৩২ দেশের পতাকা প্রদর্শন করা হয়। যে বল দিয়ে এবার রাশিয়া বিশ্বকাপ ফুটবলের খেলা হবে সেই টেলস্টার বলটিও মাঠে দেখানো হয়।

Leave A Reply

Your email address will not be published.