Banner Before Header

স্পেনের নতুন সরকার: অনেক কিছুই ‘প্রথম’

সাহাদুল সুহেদ, স্পেন থেকে

স্পেনের নতুন প্রধানমন্ত্রী স্যোসালিস্ট পার্টি নেতা পেদ্রো সানচেজের অধীনে নতুন মন্ত্রীসভার সদস্যরা গত বৃহস্পতিবার (৭জুন) শপথ গ্রহণ করেছেন। এর মাধ্যমে পার্লামেন্টের মেয়াদের অবশিষ্ট দুই বছর পেদ্রো সানচেজের সরকার দেশটি পরিচালনার দায়িত্ব বুজে নিল। তবে অপ্রত্যাশিতভাবে সরকার গঠন করলেও পেদ্রো সানচেজ স্প্যানিশ ইতিহাসে ‘প্রথম’ অনেক কিছুরই জন্ম দিয়েছেন। গত ১ জুন স্পেনের সদ্য পদচ্যুত প্রধানমন্ত্রী মারিয়ানো রাখোইর বিরুদ্ধে দুর্নীতি কেলেঙ্কারির অভিযোগ এনে পার্লামেন্টে অনাস্থা প্রস্তাব উত্থাপন ও অনাস্থা ভোটে প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে পদত্যাগে বাধ্য করেন স্যোসালিস্ট পার্টির এ নেতা পেদ্রো সানচেজ। স্পেনে চার দশকের গণতন্ত্রের ইতিহাসে কোন প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগের ঘটনা এটাই প্রথম। ২ জুন মাদ্রিদে জারজুয়েলা রাজপ্রাসাদে স্পেনের রাজা ফেলিপে ষষ্ঠ এর উপস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে স্পেনের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো বাইবেল বা ক্রুশবিদ্ধ যিশু ছাড়াই প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন সৃষ্টি কর্তায় অবিশ্বাসী পেদ্রো সানচেজ। ৮ জুন, শুক্রবার জারজুয়েলা রাজপ্রাসাদে শপথ নেয়া পেদ্রো সানচেজের মন্ত্রীসভার সদস্যদের ১৭ জনের মধ্যে ১১জনই নারী; যা মন্ত্রী পরিষদের ৬১ শতাংশ। ইউরোপের কোন পার্লামেন্টেও পুরুষের তুলনায় এত অধিক সংখ্যক নারী মন্ত্রী নেই। পুরুষের তুলনায় নারী মন্ত্রীর আধিক্য স্পেনে এবারই প্রথম।
প্রসঙ্গত, স্পেনে ২০১৫ সালের ২০ ডিসেম্বরের সাধারণ নির্বাচনে প্রধান দু‘টি দল পপুলার পার্টি ও স্যোসালিস্ট পার্টির কেউই সরকার গঠনের জন্য প্রয়াজনীয় আসন না পাওয়ায় এবং কোয়ালিশন সরকার গঠনে সমমনা দলগুলোর সম্মতি না পাওয়ায় ২০১৬ সালের ২৬ জুন দ্বিতীয় দফা সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ঐ নির্বাচনেও একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটলে স্পেনে রাজনৈতিক সঙ্গট দেখা দেয়। তখন স্পেনের রাজার পরামর্শক্রমে পার্লামেন্টে কণ্ঠভোটের আয়োজন করা হয়। ১৭০ জন সংসদ সদস্য কণ্ঠভোটে অংশগ্রহণ করেন। ১১১ ভোট পেয়ে দ্বিতীয়বারের মতো স্পেনের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হোন পপুলার পার্টি প্রধান মারিয়ানো রাখোই। কিন্তু মারিয়ানো রাখোই এবং তার দল পপুলার পার্টির বিরুদ্ধে দুর্নীতির নানা অভিযোগ ওঠে। গত ১জুন শুক্রবার পার্লামেন্টে রাখোইয়ের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব আনেন স্যোসালিস্ট পার্টির প্রধান পেদ্রো সানচেজ। সংসদে তিনি অন্য ৬টি বিরোধীদলের সমর্থনও আদায় করে নেন। অনাস্থা ভোটে হেরে প্রথমবারের মতো প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে পদত্যাগে বাধ্য হোন মারিয়ানো রাখোই। সে সুবাধে পার্লামেন্টের অবশিষ্ট দুই বছরের জন্য সরকার পরিচালনার দায়িত্ব পেয়ে যান সোস্যালিস্ট পার্টির প্রধান পেদ্রো সানচেজ।

Leave A Reply

Your email address will not be published.